অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

একজন রোহিঙ্গার মৃত্যুর পর ভীতি ছড়িয়ে পড়েছে আশেপাশের রোহিঙ্গাদের মাঝে


কক্সবাজারের শরণার্থী শিবিরে করোনায় একজন রোহিঙ্গার মৃত্যুর পর ভীতি ছড়িয়ে পড়েছে আশেপাশের রোহিঙ্গাদের মাঝে। করোনায়া মৃত রোহিঙ্গার পরিবারের সদস্যদের কোয়ারিন্টিনে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। ৭১ বছর বয়সী ওই রোহিঙ্গার সংস্পর্শে যাওয়া ৯ জন রোহিঙ্গাকেও কোয়ারিন্টিনে রাখা হয়েছে। এতে কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্পের সি ব্লকের অন্যান্য রোহিঙ্গারাও আতংকগ্রস্থ হয়ে পড়েন। মৃত রোহিঙ্গার এক প্রতিবেশী- শফি আলম জানান, অন্যান্য ক্যাম্পে এখনও করোনা নিয়ে উদাসীন হলেও তাদের প্রতিবেশীদের মধ্যে আতংক এবং সচেতনতা বেড়েছে।

বাংলাদেশ সরকারের অতিরিক্ত শরনার্থী ত্রান ও প্রত্যাবাশন কমিশনার মোহাম্মদ শামশুদ দৌজা জানান, গত ৩১ মে ক্যাম্পের একটি আইসোলেশন সেন্টারে এক রোহিঙ্গার মৃত্যুর পর আরও ২৮ জন রোহিঙ্গা এখনও চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তাদের কয়েক বার পরীক্ষা করার পরও এখনও কারও নেগেটিভ রিপোর্ট পাওয়া যায়নি।

কক্সবাজারের ৩৪টি ক্যাম্পে আশ্রয় নিয়েছেন প্রায় ১০ লাখ রোহিঙ্গা। ঘনবসতিপূর্ণ ক্যাম্পগুলোতে সঠিক তথ্যের যেমন অভাব রয়েছে, রয়েছে গুজবের ছড়াছড়ি। কাজেই অনেক ক্যাম্পে এখনও যথাযথভাবে স্বাস্থ্যবিধি মানা হচ্ছে না। অপরদিকে কেউ সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে চাইলেও, ঘনবসতি হওয়ায় তা পারছেন না। এতে করে রোহিঙ্গাদের মাঝে করোনা সংক্রমণ নিয়ে শংকা বেড়েই চলেছে।

এদিকে কক্সবাজার জেলায় এপর্যন্ত সাড়ে ৮ শতাধিক মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এরমধ্যে মৃত্যু হয়েছে প্রায় ১৫ জনের।

মোয়াজ্জেম হোসাইন সাকিল, ভয়েস অফ আমেরিকা, কক্সবাজার।

please wait

No media source currently available

0:00 0:02:34 0:00
সরাসরি লিংক


XS
SM
MD
LG