অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

জাতিসংঘ মানবাধিকার পরিষদের সদস্যপদ লাভে সৌদি আরব ব্যর্থ


Saudi Arabia

জাতিসংঘের বিতর্কিত মানবাধিকার পরিষদে একটি আসন লাভ করার চেষ্টা করে সৌদি আরব ব্যর্থ হয়েছে। তবে চীন ও রাশিয়াসহ অন্যান্য রাষ্ট্র মানবাধিকার সম্পর্কে তাদের অত্যন্ত খারাপ রেকর্ড সত্বেও, ৪৭ রাষ্ট্র বিশিষ্ট এই পরিষদের সদস্যতা পেয়েছে।

জাতিসংঘের বিতর্কিত মানবাধিকার পরিষদে একটি আসন লাভ করার চেষ্টা করে সৌদি আরব ব্যর্থ হয়েছে। তবে চীন ও রাশিয়াসহ অন্যান্য রাষ্ট্র মানবাধিকার সম্পর্কে তাদের অত্যন্ত খারাপ রেকর্ড সত্বেও, ৪৭ রাষ্ট্র বিশিষ্ট এই পরিষদের সদস্যতা পেয়েছে। এই ভোটগ্রহণের আগে জিনিভা ভিত্তিক অধিকার গোষ্ঠি ইউ.এন ওয়াচের নির্বাহী পরিচালক হিলেল নিউয়ার বলেন,“আজ মানবাধিকারের জন্য একটি কালো দিবস”। সাধারণ পরিষদে গোপন ব্যালটে যারা এবার এই পর্ষদের সদস্যতা পেল সেই দেশগুলো হচ্ছে বলিভিয়া, ব্রিটেন, চীন, কিউবা, ফ্রান্স. গ্যাবন, আইভরি কোস্ট, মালাওয়ী, মেক্সিকো, নেপাল, পাকিস্তান, রাশিয়া, সেনেগাল, ইউক্রেন এবং উজবেকিস্তান। ২০২১ সালের পয়লা জানুয়ারি থেকে তাঁরা তিন বছর মেয়াদের জন্য নির্বাচিত হলেন।

এশিয়া -প্রশান্ত মহসাগরীয় অঞ্চলের জন্য নির্ধারিত ৪ টি আসনে সৌদি আরব চীন, পাকিস্তান, নেপাল এবং উজবেকিস্তানের কাছে হেরে যায়। আশা করা হয় জিনিভা ভিত্তিক মানবাধিকার পরিষদে নির্বাচিত সদস্য রাষ্ট্রগুলো স্বদেশে এবং বিদেশে মানবাধিকার উন্নয়ন এবং সুরক্ষার জন্য সর্বোচ্চ মান তুলে ধরবে।

মানবাধিকার গোষ্ঠিগুলো অধিকারের বিষয়ে নব-নির্বাচিত সদস্যদের অনেকেরই আতঙ্কজনক রেকর্ড সম্পর্কে তীব্র সমালোচনা করেছে। নিউ ইয়র্ক ভিত্তিক হিউমান রাইটস ওয়াচের জাতিসংঘ পরিচালক বলেছেন ক্রমাগত যারা অধিকার লংঘন করে চলেছে তাদেরকে মানবাধিকার পরিষদে আসন দিয়ে পুরস্কৃত করা উচিত্ নয়। তিনি চীন ও রাশিয়ার মানবাধিকার লংঘনের দৃষ্টান্ত তুলে ধরেন। আরও তিনটি মানবাধিকার সংগঠন বলেছে মানবাধিকার বিষয়ে বাজে রেকর্ডের জন্য চীন, কিউবা, পাকিস্তান, রাশিয়া, সৌদি আরব এবং উজবেকিস্তান এই পরিষদে আসন গ্রহণের অযোগ্য।

XS
SM
MD
LG