অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

আগামীকাল থেকে কড়া লকডাউন শুরু, রেকর্ড সংখ্যক সংক্রমণ শনাক্ত ৮,৮২২


করোনার চোখ রাঙ্গানি থামাতে কঠোর লকডাউনের পথ বেছে নিল বাংলাদেশ। এই লকডাউন কার্যকরে মাঠে থাকছে সেনাবাহিনী। এছাড়া থাকবে বিজিবি, পুলিশ, র‍্যাব ও আনসার বাহিনী। কাল ভোর ছয়টা থেকে সাতদিন এই লকডাউন চলবে। এক সরকারি ঘোষণায় বলা হয়েছে, লকডাউনকালে সব সরকারি, আধা-সরকারি, স্বায়ত্তশাসিত ও বেসরকারি অফিস বন্ধ থাকবে। সড়ক, রেল ও নৌপথে গণপরিবহন সহ যন্ত্র চালিত যানবাহনও চলাচল করবে না। আন্তর্জাতিক ফ্লাইট চলবে, তবে অভ্যন্তরীণ রুটে বন্ধ। খুলবে না শপিংমল, মার্কেট সহ সবধরনের দোকানপাট। সব পর্যটনকেন্দ্র, রিসোর্ট, কমিউনিটি সেন্টার, বিনোদন কেন্দ্রেও ঝুলবে তালা। জনসমাবেশ ঘটে এ ধরনের সামাজিক, রাজনৈতিক, ধর্মীয় আচার অনুষ্ঠানও আয়োজন করা যাবে না। অতি জরুরি কাজ ছাড়া কেউ ঘর থেকে বের হতে পারবেন না। এই নির্দেশ অমান্য করলে সাজা ও জরিমানা গুনতে হবে। ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার শফিকুল ইসলাম বলেছেন, প্রয়োজন ছাড়া কেউই ঘর থেকে বের হলে গ্রেপ্তার হতে পারেন।

দেশের নিম্ন আদালতের কার্যক্রম পুরোপুরি বন্ধ থাকবে। সীমিত আকারে খোলা থাকবে হাইকোর্টের তিনটি বেঞ্চ। ভার্চুয়ালি বসবে আপিল ও চেম্বার আদালত।

সরকারি প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, গার্মেন্টস সহ কল-কারখানা নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় চালু থাকবে। সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত কাঁচাবাজার খোলা রাখা যাবে। টিকার কাজে নিয়োজিতরা চলাফেরা করতে পারবেন। হোটেল, রেস্তরাঁয় বসে কেউ খেতে পারবেন না। তবে খাবার নিয়ে যাওয়ার সুযোগ থাকবে। অনলাইনেও সরবরাহ করা যাবে। ব্যাংক খোলা থাকবে সীমিত পরিসরে। সপ্তাহে চারদিন খোলা রাখা যাবে। লেনদেনের সময় সীমিত।

ভিসা সংগ্রহের জন্য বিদেশি মিশনগুলোতে যাতায়াতকারী শিক্ষার্থী এবং তাদের পরিবার বা সহযাত্রীরা সরকার ঘোষিত কঠোর লকডাউনের আওতামুক্ত বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আবদুল মোমেন।

ওদিকে গত ২৪ ঘণ্টায় সর্বোচ্চ সংখ্যক রোগী শনাক্ত হয়েছেন। আট হাজার ৮২২ জন শনাক্ত হয়েছেন দেশের এ প্রান্ত থেকে ওপ্রান্তে। এটাই সর্বোচ্চ সংখ্যক রোগী শনাক্তের রেকর্ড। একই সময়ে মারা গেছেন ১১৫ জন।

XS
SM
MD
LG