অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

সিরিয়ার রাসায়নিক গ্যাস হামলার অভিযোগ আবারো অস্বীকার করেছে সিরিয়া ও রাশিয়া


সিরিয়ার বিদ্রোহী নিয়ন্ত্রিত উত্তরাঞ্চলীয় শহরে বিমান থেকে রাসায়নিক গ্যাস হামলার অভিযোগ আবারো অস্বীকার করেছে সিরিয়া ও রাশিয়া।

সিরিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়ালিদ মোয়াল্লেম বৃহস্পতিবার দামেস্কে সাংবাদিকদের বলেছেন খান শেইখন শহরে বিমান থেকে সাধারণ মানুষের ওপর রাসায়নিক বোমা হামলা করার প্রশ্নই ওঠেনা। এমনকি তারা সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধেও তা ব্যাবহার করবে না।

হামলায় এ পর্যন্ত একশজনের প্রাণহানির খবর পাওয়া গেছে। অসুস্থ অবস্থায় চিকিৎসা নিচ্ছেন ৩৫০ জন। এদের মধ্যে রয়েছেস বিপুল সংখ্যক নারী ও শিশু।

মোয়াল্লেম বলেন রাশিয়ার ভাষ্য হচ্ছে বিদ্রোহী নিয়ন্ত্রিত ঐ অঞ্চলে তাদের বিমান, বিদ্রোহীদের একটি রাসায়নিক অস্ত্রের ভান্ডারে আঘাত করেছে।

তুরস্কের আইনমন্ত্রী বেকির বোজদাগ আংকারায় সাংবাদিকদের বলেছেন মঙ্গলবারের হামলায় নিহত তিন সিরিয়ানের মৃতদেহের ময়না তদন্ত রিপোর্টে তাদের শরীরে রাসায়নিক গ্যাসের প্রমান পাওয়া গেছে। আরো ৩০ জন আহত সিরিয়ানের সঙ্গে ঐ তিনজনকেও তুরস্কে পাঠানো হয়েছিল চিকিৎসার জন্য। ময়না তদন্ত করেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার বিশেষজ্ঞরা।

এদিকে বুধবার হোয়াইট হাউজে জর্ডানের বাদশা আব্দুল্লাহর সঙ্গে যৌথ সংবাদ সম্মেলনে প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প সিরিয়ার রাসায়নিক অস্ত্রের হামলাকে ‘মানবতার অপমান’ আখ্যা দিয়ে বলেন কোনোভাবেই এটি সহ্য করা হবে না। বাদশা আব্দুল্লাহ বলেন আন্তর্জাতিক কুটনীতির ব্যার্থতার কারনে এই ঘটনা ঘটলো।

জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের এক জনরুরী বৈঠকে বৃটেন ফ্রান্স ও যুক্তরাষ্ট্র রাশিয়ার নিন্দা করেন। জাতিসংঘে যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত নিক্কি হেলি বলেন এর জবাবে পরিষদ সদস্যরা পদক্ষেপ না নিলে যুক্তরাষ্ট্র একাই কাজ শুরু করবে।

XS
SM
MD
LG