অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

বেজিং এ প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প, বানিজ্য উত্তর কোরিয়া মূল ইস্যু


প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প বেজিং গিয়ে পৌঁচেছেন আজ বুধবারদিন। চীনে, যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট হিসেবে এটাই তাঁর প্রথম সফর। দেশে কর্মসংস্থান সূরক্ষিত করা নিয়ে এই দেশটিই তাঁর নেতিবাচক কটাক্ষের সম্মুখিন হয়েছে প্রায় প্রায়ই। সফরে তাঁর কর্মসূচির শীর্ষে রয়েছে বানিজ্য বলাই বাহুল্য, তবে উত্তর কোরিয়া প্রসঙ্গও বাদ যাবেনা মনে হয়। হোয়াইট হাউস কর্তাব্যক্তিরা মনে করছেন- চীনের ঘনিষ্ঠতম সহযোগী দেশ- শীর্ষ বানিজ্য শরিক রাষ্ট্র উত্তর কোরিয়াও আলোচ্য সূচির বাইরে রবে বলে মনে হয়না। উত্তর কোরিয়াকে তার পারমানবিক কর্মসূচি পরিহার করায় উদ্বুদ্ধ করার প্রশ্নে, কথা বলেছেন তিনি বেজিংকে উদ্দেশ করে, সৌল ত্যাগের ঘন্টা কয়েক আগেই।

দক্ষিন কোরিয়ার জাতীয় সংসদে দেওয়া ভাষনে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প জোরালো বক্তব্যের অবতারণা করেন পিয়ংইয়াংকে উদ্দেশ ক‘রে – সঠিক পথে পা রাখার সূযোগ নিতে উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উনের প্রতি সকল পারমানবিক অস্ত্র্র পরিহার করবার আহ্বান জানান তিনি।

উত্তরের প্রতি হূঁশিয়ারি উচ্চারণ করে ট্রাম্প বলেন – আমাদের খাটো করে দেখবার কোনো অবকাশ নেই- আমাদের তাতালে, তাতে কিন্তু কোনো লাভ হবেনা। আমরা আমাদের অভিন্ন নিরাপত্তা, পারস্পরিক সমৃদ্ধি আমাদের – আমাদের পবিত্র মুক্তি স্বাধীনতা রক্ষা আমরা করবোই।

প্রেসিডেন্টের বক্তৃতার সাক্ষ বহন ক’রে যুক্তরাষ্ট্রের তিন বিমান বাহী রণতারী,- পারমানবিক সাবমেরীন আগেই ওখানে মোতায়েন করা হয়েছে- কোরিয় উপদ্বীপের অদূরবর্তী সাগরবক্ষে—প্রেসিডেন্টের কথায়, মোতায়েন করা হয়েছে যথোপযুক্ত ভাবেই।

XS
SM
MD
LG