অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

আমেরিকানদের বেশির ভাগই অবিলম্বে ট্রাম্পের ক্ষমতা ত্যাগের পক্ষে


বার্তা সংস্থা রয়টার এবং ইপসসের একটি সাম্প্রতিক জরিপে দেখা যাচ্ছে যে, এই সপ্তায় একটি প্রতিবাদ সমাবেশকে ট্রাম্প উৎসাহিত করার পর যুক্তরাষ্ট্রের ক্যাপিটলে যে মারাত্মক দাঙ্গা বেধে যায় তার পর ৫৭ শতাংশ আমেরিকান চাইছেন যে, রিপাবলিকান প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্পকে অবিলম্বে ক্ষমতা থেকে সরিয়ে দেওয়া হোক। এদের অধিকাংশই ডেমক্র্যাট, তবে রিপাবলিকানরা যারা বাহ্যত ট্রাম্পের সমর্থক, তারা চাইছেন ট্রাম্প ২০শে জানুয়ারি তার মেয়াদ পূর্ণ করেই ক্ষমতা থেকে সরে দাঁড়ান।

বৃহস্পতিবার এবং শুক্রবার পরিচালিত এই জাতীয় জনমত জরিপে আরও দেখা যাচ্ছে যে, যাঁরা নভেম্বরের নির্বাচনে ট্রাম্পকে ভোট দিয়েছিলেন তাঁরাও ট্রাম্পের সেই সব কট্টর সমর্থকদের সে দিনের কর্মকান্ডের বিরোধী। জো বাইডেনের বিজয় প্রত্যয়নের প্রক্রিয়ার মধ্যে এই কট্টর সমর্থকদের জোর করে ক্যাপিটলে প্রবেশের ঘটনার তারা বিরোধীতা করেছেন। যাদের জরিপ করা হয়েছে, তাদের প্রায় ৭০ শতাংশ আমেরিকানই বলেছেন যে, বুধবারের ঐ আক্রমণের আগে পর্যন্ত তাঁরা ট্রাম্পের কার্যকলাপকে সমর্থন করেন না। সে দিন এক সমাবেশে তাঁর হাজার হাজার অনুগতকে ক্যাপিটলে মিছিল করে যেতে তিনি উৎসাহিত করেন।

ঐ ঘটনায় একজন পুলিশসহ আরও চার ব্যক্তি প্রাণ হারালে, ডেমক্র্যাট ও রিপাবলকান নির্বিশেষে সকলেই ব্যাপক ভাবে এর নিন্দে করেন। প্রতিনিধি পরিষদের ডেমক্র্যাটরা সোমবার প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে অসদাচরণের অভিযোগ আনার পরিকল্পনা করছেন, যার ফলে ট্রাম্পের দ্বিতীয়বার অভিশংসনের প্রসঙ্গ উঠে আসতে পারে বলে অবগত দুটি সুত্র থেকে বলা হচ্ছে।

প্রতিনিধি পরিষদের স্পিকার ন্যান্সি পেলসি বলেছেন, “প্রেসিডেন্ট যদি স্বেচ্ছায় অবিলম্বে তাঁর দায়িত্ব থেকে সরে না দাঁড়ান তা হলে কংগ্রেস আমাদের কাজ চালিয়ে যাবে”। তবে এ নিয়ে জনগণের মতামত দলীয় ভাবে বিভক্ত। দশ জন ডেমক্র্যাটের মধ্যে নয় জনই মনে করেন, মেয়াদ পূরণের আগেই ট্রাম্পের উচিৎ হবে ক্ষমতা থেকে সরে দাঁড়ানো। তবে রিপাবলিকানদের দশ জনের মধ্যে মাত্র দুজন মেয়াদের আগেই ট্রাম্পের ক্ষমতা ত্যাগকে সমর্থন করছেন।

XS
SM
MD
LG