অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য জাতিসংঘের প্রতি ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র সঈদ আকবরউদ্দীনের আবেদন


Amb Syed Akbaruddin

ভারতের সরকারী ও বেসরকারী বৈদ্যুতিন গণমাধ্যমে আজই প্রকাশিত খবর সূত্রে জানা যাচ্ছে লষ্কর -ই-তৈবা বা জইশ-ই-মহম্মদের মতো সন্ত্রাবাদী সংগঠন এবং এদের ছত্রছায়া গড়ে ওঠা অন্য জঙ্গি গোষ্ঠীগুলোর বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ নিক জাতিসংঘ। এই দাবিতে আগে একাধিকবার সরব হয়েছে ভারত, ফের আবার ওই একই দাবি নিয়ে সোচ্চার হল নয়াদিল্লি। ভারতের বিদেশমন্ত্রকের মুখপাত্র সঈদ আকবরউদ্দীন নিরাপত্তা পরিষদের এক সভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে ফের এই আর্জি নিয়ে সরব হলেন। নিজের বক্তব্যে আকবরউদ্দীন বলেন, মূলত পাকিস্তানের মদতপুষ্ট এই দুই সন্ত্রাসবাদী সংগঠনের বিরুদ্ধে অবিলম্বে কড়া পদক্ষেপ নিতে হবে। কারণ, তারা বিভিন্ন রাষ্ট্র থেকে যেভাবে সাহায্য পাচ্ছে, তাতে তারা সারা দুনিয়ার জন্যে বড় হুমকি হয়ে দাঁড়িয়েছে। তাঁর বক্তব্যে তিনি বেজিংয়ের বিরুদ্ধে সরাসরি তোপ দেগে বলেন, রাষ্ট্রপুঞ্জের সমস্ত সদস্য দেশগুলোর মধ্যে সম্বনয়ের অভাবের জন্যে এভাবে সন্ত্রাসবাদী সংগঠনগুলো বিভিন্ন রাষ্ট্র থেকে সাহায্য পেয়ে এত ভয়ঙ্কর হয়ে উঠছে।আকবরউদ্দীন তাঁর বক্তব্যে, স্পষ্ট চিনের দিকে আঙুল তুলে, জইশ প্রধান মাসুদ আজহার, লস্কর কম্যান্ডার জাকি-উর-রহমান-লকভিকে বিভিন্ন ভাবে সাহায্যের অভিযোগ তুলেছেন।
আকবরউদ্দীন তাঁর বক্তব্যে আরও বলেন, তালিবান, হাক্কানি, দইশ, আলকায়দা, লস্কর ও জইশের মতো সংঘঠনগুলো সম্পূর্ণ আন্তর্জাতিক আইনের বাইরে থেকে নিজেদের কর্মকাণ্ড চালিয়ে যাচ্ছে। এমনকি আফগানিস্তানের বাইরে থেকে মূলত মদত পায় এই সংগঠনগুলো। আফগানিস্তানে বিভিন্ন সময় কোন সংগঠনের অধীনে ক্ষমতা থাকবে, সেনিয়ে ঠাণ্ডা লড়াই চলে। আরক্ষমতা দখলের এই লড়াইয়ে সন্ত্রাসের আঁচড় থেকে নিস্তার নেই সাধারণ আফগান পুরুষ, মহিলা এবং শিশুদের। আর এদের বাড়বাড়ন্ত রুখতেই কঠোর হতে হবে জাতিসংঘকে, আর্জি ভারতের বিদেশ মন্ত্রকের মুখপত্র সঈদ আকবরউদ্দীনের।
কলকাতা থেকে এ সম্পর্কে বিস্তারিত জানিয়েছেন পরমাশিষ ঘোষ রায়।

XS
SM
MD
LG