অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ইথোপিয়া সরকারের একতরফা অস্ত্রবিরতি: বিদ্রোহীদের হুঁশিয়ারি


ইথোপিয়ার সংঘাতময় টিগ্রায় অঞ্চলের বিদ্রোহীরা মঙ্গলবার সতর্ক করে দিয়েছে যে ইথোপিয়ো সরকারের একতরফা অস্ত্র বিরতি ঘোষণা সত্বেও তাদের সৈন্যরা ইথোপিয়ো ও ইরিত্রিয়ো বাহিনীকে পর্যদূস্ত করার প্রচেষ্টা চালিয়ে যাবে। এর আগে মঙ্গলবার রাতেই ইথোপিয়ার সরকার রাষ্ট্রীয় সংবাদ মাধ্যমে অস্ত্রবিরতির ঘোষণা দেয়। ঐ অঞ্চলে প্রায় আট মাসের সংঘাতের পর এই ঘোষণাটি এমন এক সময়ে দেয়া হল যখন টিগ্রায়ের প্রাক্তন শাসকদলের সৈন্যরা  আঞ্চলিক রাজধানী মেকেলেতে অধিবাসীদের বিজয় উল্লাসের মধ্যে প্রবেশ করে।

ইথোপিয়ার সংঘাতময় টিগ্রায় অঞ্চলের বিদ্রোহীরা মঙ্গলবার সতর্ক করে দিয়েছে যে ইথোপিয়ো সরকারের একতরফা অস্ত্র বিরতি ঘোষণা সত্বেও তাদের সৈন্যরা ইথোপিয়ো ও ইরিত্রিয়ো বাহিনীকে পর্যদূস্ত করার প্রচেষ্টা চালিয়ে যাবে। এর আগে মঙ্গলবার রাতেই ইথোপিয়ার সরকার রাষ্ট্রীয় সংবাদ মাধ্যমে অস্ত্রবিরতির ঘোষণা দেয়। ঐ অঞ্চলে প্রায় আট মাসের সংঘাতের পর এই ঘোষণাটি এমন এক সময়ে দেয়া হল যখন টিগ্রায়ের প্রাক্তন শাসকদলের সৈন্যরা আঞ্চলিক রাজধানী মেকেলেতে অধিবাসীদের বিজয় উল্লাসের মধ্যে প্রবেশ করে। রয়টারের সঙ্গে মঙ্গলবার এক সাক্ষাত্কারে ইথোপিয়ার সরকারের বিরুদ্ধে যুদ্ধরত টিগ্রায় বাহিনীর একজন মুখপাত্র হুঁশিয়ার করে দেন যে বিদ্রোহী টিগ্রায় প্রতিরক্ষা বাহিনী প্রয়োজন বোধে তাদের ‘শত্রু’বাহিনীকে তাড়া করার লক্ষ্যে প্রতিবেশি ইরিত্রিয়া এবং ইথোপিয়ার আমহারা অঞ্চলে প্রবেশ করবে। মঙ্গলবার দিনে আরও পরের দিকে টিগ্রায়ের আঞ্চলিক সরকারের একজন ঊর্ধ্বতন সদস্য দ্য নিউ ইয়র্ক টাইমসকে বলেন যে টিগ্রায়ের নেতৃত্ব ইথোপিয়া ও ইরিত্রিয়ার সেনাবাহিনী, “যেখানেই থাকুক না কেন”, তাদের “দূ্র্বল ও ধ্বংস” করতে বদ্ধপরিকর। টিগ্রায় পিপলস লিবারেশন ফ্রন্ট (টিপিএলএফ),যারা এর আগে ঐ অঞ্চল শাসন করেছে , তাদের সৈন্যরা দলীয় বেতারে ঘোষণা করে যে তারা মেকেলেতে প্রবেশ করেছে। টিপিএলএফ’এর একজন মুখপাত্র গেটাচিউ রেডা মঙ্গলবার রয়টারকে বলেন, “আমরা মেকেলের ১০০% নিয়ন্ত্রণ গ্রহণ করেছি। তবে রয়টার জানিয়েছে টিপিএলএফ যে রাজধানীর সম্পূ্র্ণ নিয়্ন্ত্রণ গ্রহণ করেছে সে ব্যাপারে নিরপেক্ষ কোন সুত্র থেকে নিশ্চিত জানা যায়নি।

XS
SM
MD
LG