অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ভারতীয় সৈন্যদের বিশেষ ধরনের শীতবস্ত্র পাঠিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র


ভারতের উত্তরে চীন সীমান্তে লাল ফৌজের সঙ্গে সঙ্গে হিমালয়ের প্রবল ঠান্ডার মোকাবিলা করার জন্য ভারতীয় সৈন্যদের বিশেষ ধরনের শীতবস্ত্র পাঠিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। হিমালয়ের ওই উচ্চতায় ঠান্ডা এতই প্রবল, সেই সঙ্গে বরফ শীতল হাওয়া, অক্সিজেনের স্বল্পতা, সব মিলিয়ে মানুষের পক্ষে সেখানে থাকা খুবই কষ্টকর। তবে ভারতীয় সৈন্যদের বেশ কয়েক বছর ধরেই ওই উচ্চতায় ওরকম ঠান্ডার মধ্যে সীমান্ত রক্ষার প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে। সাধারণত ওখানে ৬০ হাজার সৈন্য মোতায়েন থাকে। ঠান্ডা পড়লে তারা কিছুটা নীচে নেমে আসে। কিন্তু এবারে চীন যে আগ্রাসী মনোভাব নিয়েছে এবং সংঘর্ষ বাধানোর চেষ্টা করছে তাতে আরও ৩০ হাজার সেনা ওখানে পাঠানো হয়েছে। এবং ধরে নেওয়া হচ্ছে, দীর্ঘদিন তাদের ওই অঞ্চলে পাহারা দেওয়ার জন্য থাকতে হবে।

এই অতিরিক্ত সেনাদের জন্যই যুক্তরাষ্ট্র প্রথম দফায় শীতবস্ত্র পাঠিয়েছে‌ যে কোনও শীতবস্ত্র নয়, কারণ ওই অঞ্চলের ঠান্ডার সঙ্গে যে কোনও ঠান্ডার তুলনা করা যায় না। ভারতীয় সেনাবাহিনী থেকে একটি ছবি পোস্ট করা হয়েছে, তাতে দেখা যাচ্ছে বরফে ঢাকা পাহাড়ের সীমান্ত এলাকায় বিশেষ শীতবস্ত্র পরে যুদ্ধ উপযোগী রাইফেল নিয়ে একজন সৈন্য দাঁড়িয়ে আছেন। এই পোশাক ও সেইসঙ্গে অত্যাধুনিক যুদ্ধাস্ত্র ভারতীয় সেনাদের চীনা ফৌজের মোকাবিলায় অনেক বেশি ভরসা দেবে। এ সব উপকরণ পাঠানোর জন্য ভারতের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের চুক্তি হয়েছিল ৪ বছর আগে। দফায় দফায় জিনিস গুলো ভারতে আসছিল। কিন্তু এবারে পরিস্থিতির পরিবর্তন হয়েছে দ্রুত। মাত্র কয়েকদিন আগেই যুক্তরাষ্ট্রের বিদেশমন্ত্রী মাইক পম্পেও এবং প্রতিরক্ষামন্ত্রী মার্ক এসপার দিল্লিতে এসে চীনের দিক থেকে আসা বিপদ সম্পর্কে 'দুইয়ের সঙ্গে দুই' আলোচনা করে গিয়েছেন। কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ সামরিক চুক্তিও হয়েছে। তখনই ভারতের প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং অনুরোধ করেছিলেন শীতবস্ত্র ও যুদ্ধাস্ত্র আর একটু তাড়াতাড়ি পাঠাতে। সেই অনুযায়ী ওগুলো এসে পৌঁছেছে। শীতবস্ত্র ছাড়াও যুক্তরাষ্ট্র থেকে এসেছে বেশকিছু অ্যাসল্ট রাইফেল যা লাদাখের রাজধানী লেহ্ থেকে হেলিকপ্টারে করে সীমান্তে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে।

please wait

No media source currently available

0:00 0:02:03 0:00
সরাসরি লিংক


XS
SM
MD
LG