অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

নিহত সাংবাদিক খাশোগজি’র ছেলে এখন যুক্তরাষ্ট্রে


যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষামন্ত্রী জিম ম্যাটিস বলেছেন, সৌদি পররাষ্ট্রমন্ত্রী আদেল আজ জুবেইরের সঙ্গে তাঁর দেখা হয়েছে- কথা হয়েছে শনিবার বাহরাইনে, মানামা সংলাপ নিরাপত্তা সম্মেলনে। ওখানে প্রতিরক্ষামন্ত্রী ম্যাটিস এ মাসের গোড়ার দিকে তুরস্কে রিয়াদের কনস্যুলেটে সৌদি সাংবাদিক জামাল খাশোগজি’র হত্যার ব্যাপারে স্বচ্ছ তদন্ত হওয়া প্রয়োজন বলে জোর দিয়েছেন।

ম্যাটিস ঐ নিরাপত্তা সম্মেলনে জানান, একটা কূটনৈতিক কার্যালয়ে জামাল খাশোগজির এহেন হত্যাকান্ড সকলের জন্যেই একটা উদ্বেগের কারণ। অবশ্যই আন্তর্জাতিক রীতি-নীতি, আইন কানুনের অনুসরণে যে কোন দেশেরই ব্যর্থতা আঞ্চলিক স্থিতাবস্থাকে বিঘ্নিত করে, যে স্থিতাবস্থার সবচেয়ে বড়ো প্রয়োজন রয়েছে এই মুহুর্তে।

প্রতিরক্ষামন্ত্রী বলেন, পররাষ্ট্রমন্ত্রী পম্পেয়ো ইতোমধ্যেই কিছু সংখ্যক সৌদির ভিসা খারিজ করে দিয়েছেন এবং দায়ী ব্যক্তিদের ব্যাপারে অতিরিক্ত আরো কিছু পদক্ষেপ নেওয়া হবে। ইতোমধ্যে, সৌদি আরবের এ্যাটর্নী জেনারেল আজ তুরস্ক যাচ্ছেন বলে জানা গিয়েছে বার্তা সংস্থা এ্যাসোসিয়েটেড প্রেসের একটি রিপোর্টে। খাশোগজি হত্যাকান্ড নিয়ে তদন্তে ব্রতী তুর্কি তদন্তকারিদের সঙ্গে কথা বলবেন সৌদি ঐ এ্যাটর্নী জেনারেল সাউদ আল মোজেব।

এদিকে সি এন এন বার্তা সংস্থার এক খবরে বলা হচ্ছে, নিহত সাংবাদিক খাশোগজি’র পুত্র সালাহ বিন জামাল খাশোকজি যুক্তরাষ্ট্রে এসে পৌঁছেছেন। যুক্তরাষ্ট্র-সৌদি আরব এ দু’দেশেরই দ্বৈত নাগরিকত্ব রয়েছে তাঁর। চলতি সপ্তাহের আগে অবধি সৌদি সরকার তাঁর ভ্রমনের ওপর নিষেধাজ্ঞা দিয়ে রেখেছিল। সৌদি যুবরাজ এবং বাদশা সালমানের সঙ্গে করমর্দন করছেন সালাহ খাশোগজি, মঙ্গলবার এরকম একটা ছবি প্রকাশিত হবার পর ঐ নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করা হয়। সালাহ খাশোগজিকে যেন দেশ ছেড়ে বাইরে যাওয়ার অনুমতি দেওয়া হয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী পম্পেয়ো সে বাবদে অনুরোধ জানিয়েছিলেন।

XS
SM
MD
LG