অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

দুই দশকে টিকা বহু মানুষের জীবন বাঁচালেও কোভিড ভবিষ্যতের জন্য হুমকি বলছেন বিজ্ঞানীরা


নতুন একটি গবেষণায় দেখা গেছে, পৃথিবীর কয়েকটি মারাত্মক রোগের বিরুদ্ধে টিকা কর্মসূচিগুলি গত বিশ বছরে লক্ষ লক্ষ মানুষের জীবন বাঁচিয়েছে। তবে গবেষকরা সতর্ক করেছেন যে এই অগ্রগতি করোনভাইরাস মহামারীর কারণে হুমকির সম্মুখীন।

গাভি, ভ্যাকসিন অ্যালায়েন্স এবং বিল অ্যান্ড মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশনের অর্থায়নে ভ্যাকসিন ইমপ্যাক্ট মডেলিং কনসোর্টিয়ামের বিজ্ঞানীরা গত দুই দশক ধরে ১১২টি নিম্ন এবং মধ্য আয়ের দেশে দশটি সংক্রামক রোগের টিকাদান কর্মসূচির প্রতি নজর রেখেছেন।

তারা দেখতে পেয়েছেন, টীকার মাধ্যমে প্রায় ৫ কোটি মানুষের জীবন বাঁচানো সম্ভব হয়েছে, যাদের বেশিরভাগই শিশু।

গবেষকরা যে রোগগুলির কথা বলেছেন তাদের মধ্যে হাম, হেপাটাইটিস বি, হিউম্যান পেপিলোমা ভাইরাস (এইচপিভি), হলুদ জ্বর, হিমোফিলাস ইনফ্লুয়েঞ্জা টাইপ বি, স্ট্রেপ্টোকোকাস নিউমোনিয়া, রুবেলা, রোটাভাইরাস, নিসেরিয়া মেনিনজিটাইডিস সেরো গ্রুপ এ, এবং জাপানীজ এনসেফালাইটিস অন্তর্ভুক্ত।

এই সমীক্ষা কভিড মহামারী শুরুর আগে ভ্যাকসিনের প্রভাব বিষয়ে বৃহত্তম মূল্যায়ন।

প্রতিবেদনটির সহ-লেখক, ইম্পেরিয়াল কলেজ লন্ডনের ডঃ কেটি গেইথর্প ভিওএ-কে বলেছেন, টিকাদান কর্মসূচির এই অগ্রগতি বজায় রাখতে পারলে গত দুই দশকের সাফল্য ধরে রাখা সম্ভব হবে।

গেইথর্প বলেন, “আমাদের পরিকল্পনায় আমরা যদি টিকা কার্যক্রম অব্যাহত রাখি, ২০১৯ এর পর থেকে আমরা আরও ৪ কোটি ৭০ লাখ মানুষকে মৃত্যুর হাত থেকে বাঁচাতে পারবো – এটা বিশাল সংখ্যা”।

টিকাদান কর্মসূচি নির্দিষ্ট কিছু রোগ প্রতিরোধের বাইরেও আরও বেশ কিছু উপকারে আসবে।

তিনি বলেন “উদাহরণস্বরূপ, যদি কেউ ভ্যাকসিন-প্রতিরোধযোগ্য রোগে অসুস্থ হয়ে না পড়ে, তাহলে এই সংক্রমণের কারণে স্বাস্থ্যসেবার উপর অনেক কম চাপ পড়বে, অর্থাৎ আপনি অন্যান্য রোগাক্রান্তদের চিকিত্সার দিকে নজর দিতে পারবেন”।

তবে গবেষকরা সতর্ক করে বলেছেন, কোভিড-১৯ মহামারী অন্যান্য টিকাদান কর্মসূচিকে কিছুটা ব্যাহত করেছে এবং সেগুলোর ব্যাপ্তি হ্রাস পেতে পারে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা চলতি বছরের গোড়ার দিকে ভ্যাকসিন প্রোগ্রামগুলি পুনরায় শুরু করতে এবং আরও বেশি লোকের কাছে পৌঁছে দিতে “টিকাদান এজেন্ডা ২০৩০” চালু করেছে।

বিজ্ঞানীরা বলছেন, বিপুল সংখ্যক মানুষের জীবন রক্ষা আধুনিক চিকিৎসার অত্যাশ্চর্য অগ্রগতিকেই প্রমাণ করে। সেইসাথে কভিড মহামারী মোকাবেলার পাশাপাশি অন্যান্য ভ্যাকসিন প্রোগ্রামকে সচল রাখাও অনেক গুরুত্বপূর্ণ।

XS
SM
MD
LG