অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

পশ্চিমবঙ্গে বন্যা নিয়ন্ত্রণ


Indian villagers stand on the breached embankment of swollen Kangsabati river at Samat village in West Bengal state, India, Oct. 15, 2013.

পশ্চিমবঙ্গে চলতি মরসুমে অকাল বন্যা পরিস্থিতিতে এরাজ্যে কেন্দ্রের অধীনস্থ জলাধারগুলির জল ধারণ ক্ষমতা বাড়ানোর জন্য শীঘ্রই সমীক্ষা শুরু হবে।পশ্চিমবঙ্গ সরকারের রাজ্য সদর দপ্তর নবান্ন সূত্রে খবর কেন্দ্রীয় সংস্থা দামোদর ভ্যালি কর্পোরেশন ডিভিসি-র তরফে এমনই আশ্বাস দেওয়া হয়েছে।এই মুর্হূতে এখনও জলবন্দি রাজ্যের বহু মানুষ। আর এই জল-যন্ত্রণা নিয়ে গত কয়েকদিনে চরমে উঠেছে রাজ্যসরকার ও কেন্দ্রীয় সংস্থা ডিভিসি চাপানউতোর। যদিও এই ঘটনা নতুন নয়। যখনই এরকম দুর্যোগ হয়, তখনই একই রকম পরিস্থিতি তৈরি হয়। রাজ্যের বাম সরকারের সময়কালকিম্বা বর্তমান তৃণমূল সরকারের শাসন কাল। সময় বদলালেও, ফিরে আসে ‘ম্যানমেড বন্যা’র তত্ত্ব। ওঠে জলাধার সংস্কারের দাবি। এ বারও তার ব্যতিক্রম হয়নি।
পশ্চিমবঙ্গ সরকারের তরফে বরাবর এই দাবি করা হলেও, এতদিন সেভাবে সাড়া দিতে দেখা যায়নি ডিভিসিকে। কিন্তু এবারই প্রথম রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকারের আর্জিতে মান্যতা দিল কেন্দ্রের অধীনস্থ দামোদর ভ্যালি কর্পোরেশন। নবান্ন সূত্রে খবর, রাজ্যের অনুরোধের প্রেক্ষিতে ডিভিসির তরফে জানানো হয়েছে, তারা পুরো বিষয়টি খতিয়ে দেখছে। মাইথন, পাঞ্চেত-সহ অধীনস্থ জলাধারগুলির জল ধারণ ক্ষমতা বাড়ানো ও পলি সংস্কারের জন্য সমীক্ষা শুরু করা হবে।
অন্যদিকে, দামোদরের নিম্ন অববাহিকার নদীগুলিতে পলি সংস্কারের কাজ শুরু করা হবে।

এ সম্পর্কে কলকাতা থেকে পরমাশিষ ঘোষ রায়ের রিপোর্ট।

XS
SM
MD
LG