অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

নারী কন্ঠ: প্রয়াত সাবেক ফার্স্ট লেডি বারবারা বুশের কথা


শাগুফতা নাসরিন কুইন

আজ নারী কন্ঠে আপনাদের শোনাবো সদ্য প্রয়াত সাবেক ফার্স্ট লেডি বারবারা বুশের কথা।

please wait

No media source currently available

0:00 0:07:22 0:00

আমেরিকার অতি জনপ্রিয় সাবেক ফার্স্ট লেডি বারবারা বুশ ১৭ই এপ্রিল, মঙ্গলবার রাতে, মারা যান। তিনি ছিলেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট এইচ ডাব্লিউ বুশের স্ত্রী আর সাবেক প্রেসিডেন্ট জর্জ ডাব্লিউ বুশের মা। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিলো ৯২বছর।

ভয়েস অফ আমেরিকার সংবাদদাতা মারিয়ামা ডিয়ালো তাঁর প্রতিবেদনে বারবারা বুশ সম্পর্কে বিস্তারিত জানিয়েছেন।

FILE- In this March 21, 2011, file photo, from left, former President Bill Clinton, former President George H.W. Bush and his wife Barbara Bush stand for the National Anthem at the Kennedy Center.
FILE- In this March 21, 2011, file photo, from left, former President Bill Clinton, former President George H.W. Bush and his wife Barbara Bush stand for the National Anthem at the Kennedy Center.

৮০র দশকের শেষের দিকে এবং ১৯৯০ এর দশকের গোড়ার দিকে প্রেসিডেন্ট এইচ ডাব্লিউ বুশ যখন আমেরিকার ৪১ তম প্রেসিডেন্ট হন, তখন বারবারা বুশ ছিলেন যুক্তরাষ্ট্রের ফার্স্ট লেডি। তিনি পরে, যখন তার ৬ সন্তানের একজন, জর্জ ডাব্লিউ বুশ ২০০০ সালে প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন তখন তিনি একজন প্রেসিডেন্টের মা হন।

বারবারা বুশ বলেন, “ আমি যখন প্রেসিডেন্টের স্ত্রী ছিলাম আমার যথেষ্ট সমস্যা ছিল। আর এখন যখন দেখি আমার সেই ছোট্ট ছেলে যাকে আমি গাড়িতে করে বেসবল খেলায় নিয়ে যেতাম আর সবসময় বকাবকি করতাম এই তোমার ঘর পরিষ্কার করো—সে এখন প্রেসিডেন্ট---সত্যি বিস্ময়কর।"

বারবারা বুশ তার পরিবারেরর প্রতি প্রচন্ড ভাবে অনুগত ছিলেন। সে কথাটি সবাই জানতেন। তার কথায়, ‘কেউ যদি আমার ব্রিলিয়ান্ট স্বামীর সমালোচনা করে আমি একেবারেই পছন্দ করি না, আর আমার ছেলের যদি কেউ সমালোচনা করে আমি দারুণ ক্ষুব্ধ হই।”

লোকজন সবসময় বলতেন বারবারা বুশ ছিলেন অত্যন্ত বিনয়ী। কিন্তু “ফার্স্ট লেডী হিসেবে তার অন্যতম বড় অবদান ছিল সাক্ষরতার ক্ষেত্রে অগ্রগতি সাধন করা। হিউস্টান ইউনিভার্সিটির ইতিহাসের প্রফেসর ন্যান্সি বেক ইয়ং বলেন, "তিনি সবসময় লেখাপড়ার গুরুত্ব তুলে ধরতেন এবং হোয়াইট হাউসে বিভিন্ন অনুষ্ঠান কর্মসুচীতে তিনি পড়া এবং লেখার গুরুত্বটা কি, সে কথাই বলতেন। মিসেস বুশ বলতেন লিখতে পারা এবং পড়তে পারাটা নির্ধারণ করে যে এক ব্যক্তি অন্যান্য সামাজিক দৈনতার দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন কিনা।”

President Barack Obama stands with first lady Michelle Obama, left, former president George W. Bush, Laura Bush, and Barbara Bush at the dedication of the George W. Bush presidential library on the campus of Southern Methodist University in Dallas, April
President Barack Obama stands with first lady Michelle Obama, left, former president George W. Bush, Laura Bush, and Barbara Bush at the dedication of the George W. Bush presidential library on the campus of Southern Methodist University in Dallas, April

প্রায় তিন দশক আগে তিনি প্রতিষ্ঠা করেছিলেন বারবারা বুশ ফাউণ্ডেশন ফর ফ্যামিলি লিটেরাসি। সারা যুক্তরাষ্ট্রে সাক্ষরতা কার্যক্রম প্রতিষ্ঠা করতে বা সম্প্রসারিত করতে ওই Foundation ১১ হাজার কোটি ডলারের বেশি অর্থ সংগ্রহ করে। বারবারা বুশ অনেক বইও প্রকাশ করেছেন।

টেক্সাস রাজ্যের হিউস্টন বিশ্ববিদ্যালয়ে ইতিহাসের অধ্যাপক ন্যান্সী বেক ইয়াং বলেন, “ তিনি যখন হোয়াইট হাউসে ছিলেন, তখন তাঁর লেখা মিলিস বুক প্রকাশিত হয়। মিলি ছিল তার পোষা কুকুর। আর মিলির দৃষ্টিভঙ্গি থেকে হোয়াইট হাউসে জীবন যাপনের বিবরণ ছিল বইটিতে। বইটি বিক্রী করে যে অর্থ আসে প্রায় ১০ লক্ষ ডলার সেই অর্থ তিনি দান করেন সাক্ষরতার কাজে।”

বারবারা বুশ সোজাসুজি কথা বলতেন।

​টেক্সাস রাজ্যের হিউস্টন বিশ্ববিদ্যালয়ে ইতিহাসের অধ্যাপক ন্যান্সী বেক ইয়াং বলেন, ‘তিনি সোজা কথার মানুষ ছিলেন। তার বক্তব্য কাজকর্ম সবই জানা। তার প্রেস সচীবকে তিনি বলতেন আমি যা বলি যা করি, সব কিছুরই রেকর্ড রয়েছে, আমি যদি কিছু বলে থাকি, হ্যাঁ সেটাই বলেছি।”

বারবারা বুশের জন্ম ১৯২৫ সালের ৮ই জুন। জর্জ এইচ ডাব্লিউ বুশের সঙ্গে তিনি বিবাহিত জীবন কাটিয়েছেন ৭৩(তিয়াত্তর) বছর।

জর্জ এইচ ডব্লু বুশ যুদ্ধে বৈমানিক হিসেবে যোগ দেবার ঠিক আগে তাদের বাগদান হয়। সেইসময় জর্জ বুশের আবেগ অনুভুতি কেমন ছিল?

প্রেসিডেন্ট জর্জ এইচ ডাব্লিউ বুশ বলেন, ‘আমি অন্ধকার আকাশের দিকে তাকিয়ে আমার হারিয়ে যাওয়া বন্ধুদের কথা ভাবতাম, যে দেশকে আমি ভালবাসি এবং সেই বারবারা নামের মেয়েটির কথা ভাবতাম।’

বারবারা বুশ এক মর্মান্তিক ঘটনার সম্মুখীন হন যখন তাঁর এক কন্যা ৩ বছর বয়সে লুকিমিয়ায় মারা যায়।

তাঁর এক নাতনি তাঁর মৃত্যুর পর বলেন পৃথিবীটা আরও ভাল একটা জায়গা ছিল, বারবারা বুশ সেখানে ছিলেন বলে।

শীর্ষ আমেরিকান রাজনীতিকরা প্রয়াত সাবেক ফার্স্ট লেডি বারবারা বুশের প্রতি শ্রদ্ধা জানাচ্ছেন এবং বলছেন তিনি তাঁর পরিবার, দেশ এবং জনকল্যাণে নিবেদিত ছিলেন।

প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প তাঁর প্রশংসা করে বলেন তিনি আমেরিকান পরিবারের প্রবক্তা ছিলেন।

সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা বলেন যে তিনি এবং সাবেক ফার্স্ট লেডি মিশেল ওবামা যখন হোয়াইট হাউসে ছিলেন তখন তিনি যে বদান্যতা দেখিয়েছেন তার জন্য তারা সবসময়ই মিসেস বুশের কাছে কৃতজ্ঞ থাকব। কিন্তু তিনি যে ভাবে তাঁর জীবন যাপন করতেন তার জন্য তারা তাঁর কাছে আরও বেশী কৃতজ্ঞ।

শনিবার ২১এপ্রিল টেক্সাস রাজ্যের হিউস্টানে সাবেক ফার্স্ট লেডি বারবারা বুশের শেষকৃত্য অনুষ্ঠিত হবে।

XS
SM
MD
LG