অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বলছে, ২০১২ সালে পৃথিবীব্যাপী প্রায় ৫ লক্ষ মানুষ বহু-ওষুধ প্রতিরোধক যক্ষ্মাইয় আক্রান্ত হয়েছে। দুঃখের বিষয়, মাত্র চারজনের একজনের বেলায় এই রোগ শণাক্ত করা গেছে। বাকিদের পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর্যাপ্ত সুযোগ না থাকায় রোগ ধরা পড়েনি।
৫ বছর আগে, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা এবং আরো কয়েকটি অংশীদারী সংস্থা, ২৭ টি নিম্ন ও মধ্য আয়ের দেশে একটি নতুন কর্মসূচী শুরু করেছে। এই কর্মসূচীর লক্ষ বিভিন্ন দেশের স্বাস্থ্য ব্যবস্থার দুর্বলতার কারণে যাদের যক্ষ্মা রোগ ধরা পড়ছে না তাদের কাছে স্বাস্থ্যসেবা পৌঁছোনো।
বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার বিশ্বব্যাপী যক্ষ্মা কর্মসূচীর পরিচালক, মারিও র‌্যাভিলিয়নে বলছেন, যক্ষ্মা শণাক্ত হয়নি এমন রোগীদের খুঁজে বের করা্র ক্ষেত্রে এই কর্মসূচী বেশ অগ্রগতি সাধন করেছে। কর্মসূচীটির নাম Expand TB. তিনি আরো বলছেন, ২০১২ সালে ২৭টি দেশে ৭০ হাজার নতুন বহু-ওষুধ প্রতিরোধক যক্ষ্মা রোগীর সন্ধান পাওয়া গেছে।

তাঁর মতে, কর্মসূচী শুরু হবার এক বছর আগে, এই ২৭টি দেশে বহু-ওষুধ প্রতিরোধক যক্ষ্মা রোগীর সংখ্যা ছিল মাত্র ১০ হাজার। ২০০৯ সালে এই কর্মসূচী চালু হয়। ২০১২ সালে এই ধরনের রোগীর সংখ্যা বেড়েছে তিনগুণ। এক্ষেত্রে ভারতের কথা বলা যেতে পারে। যেখানে যক্ষ্মা রোগীর সংখ্যা ছিল মাত্র ৪ বা ৫ হাজার। সেখানে এই কর্মসূচীর বদৌলতে ২০১২ সালের মধ্যে প্রায় ১৬ হাজার যক্ষ্মা রোগী শণাক্ত করা গেছে। এতে আরো বোঝা যাচ্ছে, যক্ষ্মা রোগীর সংখ্যা বাড়ছে নাটকীয়ভাবে।
বিশ্বের যক্ষ্মা রোগীর ৪০ শতাংশের বাস ঐ ২৭টি দেশে। Expand TB কর্মসূচীতে ইউনিটেইড ৮৭ মিলিয়ন ডলার সাহায্য দিয়েছে। আর এর বাস্তবায়নের মূল দায়িত্বে আছে FIND নামে একটি সংগঠন। সংগঠনটির সি ই ও কাথারিনা বেইমে বলছেন, স্বাস্থ্য সেবার মাত্র ৩ থেকে ৫ শতাংশ ব্যয় হয় রোগ শণাক্ত করার কাজে। Expand TB এক্ষেত্রে বিশেষ ভূমিকা রাখতে পারে।
তিনি মনে করেন, রোগীদের তাতক্ষণিকভাবে লাভ হওয়ার পাশাপাশি Expand TB ভবিষ্যতে যক্ষ্মা রোগ শণাক্ত করার ক্ষেত্রেও ভূমিকা রাখবে। FIND কাজ করছে, বিভিন্ন গবেষণা এবং উন্নয়ন অংশীদারীদের সঙ্গে সমন্বয় সাধনের লক্ষ্যে। দ্রুত পরীক্ষার মাধ্যমে যক্ষ্মা শণাক্ত করার গুরুত্ব অপরিসীম। এর ফলে, এই রোগ ছড়িয়ে পড়া অনেকাংশে রোধ করা যাবে। যক্ষ্মা রোগের ওষুধ আবিষ্কারের ক্ষেত্রেও তা ভূমিকা রাখবে।
যক্ষ্মা একটি ছোঁয়াছে রোগ এবং এই রোগ ছড়ায় বাতাসের মাধ্যমে। সাধারণ যক্ষ্মা হলে মানুষ ছমাসের চিকিতসায় সেড়ে উঠতে পারে। যার ব্যয় মাত্র ৩০ ডলার। অন্যদিকে, বহু-ওষুধ প্রতিষেধক যক্ষ্মা সাড়ানোর জন্যে প্রয়োজন দুবছরব্যাপী চিকিতসা।

please wait

No media source currently available

0:00 0:02:52 0:00
সরাসরি লিংক
XS
SM
MD
LG