অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

আইএস-খোরাসানের প্রায় ৬০০ সদস্যকে আটক করার দাবী তালিবানের


আফগানিস্তানের উত্তর কাবুলে রবিবার রাতে তালিবান বাহিনী ইসলামিক স্টেটের আস্তানার পাশে একটি বাড়িতে অভিযান চালানোর পর ঐ বাড়ির সামনে একজন তালেবান সৈনিক পাহারা দিচ্ছেন।৪ অক্টোবর ২০২১। (ছবি- রয়টার্স/স্টাফ)

বুধবার আফগানিস্তানের তালিবান জানিয়েছে যে তারা আগস্টের মাঝামাঝি নিয়ন্ত্রণ নেবার পর থেকে ইসলামিক স্টেট-খোরাসান প্রদেশ নামে পরিচিত স্থানীয় ইসলামিক স্টেটের সহযোগী গোষ্ঠীর প্রায় ৬০০ সদস্যকে আটক করেছে।

ইসলামপন্থী তালিবান শাসনের আফগান গুপ্তচর সংস্থার নতুন নাম দেয়া হয়েছে জেনারেল ডিরেক্টরেট অফ ইন্টেলিজেন্স। এই সংস্থার একজন মুখপাত্র কাবুলে সাংবাদিকদের জানান আইএস-খোরাসানের "উচ্চ পদস্থ" কমান্ডাররাও আটককৃতদের মধ্যে রয়েছেন।

আইএস-খোরাসানের স্থানীয় নাম ‘দায়িশ’ ব্যবহার করে কাবুলে এক সংবাদ সম্মেলনে কাহলিল হামরাজ বলেন, "দায়িশের সঙ্গে যুক্ত ঐ ব্যক্তিদের এখন কঠোর নিরাপত্তার মধ্যে কারাগারে রাখা হয়েছে।"

তিনি জানান, গোষ্ঠীর বিরুদ্ধে চলমান নিরাপত্তা অভিযানে প্রায় ৪০ জন জঙ্গি নিহত হয়েছে।

হামরাজ প্রাক্তন আফগান সরকারের বিরুদ্ধে অভিযোগ করে বলেন আগস্টে তালিবান কাবুলের নিয়ন্ত্রণ নেবার ঠিক আগে তারা প্রায় ১৮০০ আইএস-খোরাসান জঙ্গি এবং অন্যান্য অপরাধীকে কারাগার থেকে মুক্তি দিয়েছে। তিনি জানান আফগানিস্তানের কিছু এলাকায় গাড়ি বোমা হামলা এবং অন্যান্য সহিংস কার্যকলাপের পেছনে ঐ মুক্তিপ্রাপ্ত বন্দীদের হাত রয়েছে।

আইএস-খোরাসান আত্মঘাতী বোমা হামলা সহ দেশজুড়ে কয়েক ডজন হামলার দায় স্বীকার করেছে। সহিংসতায় শত শত আফগান বেসামরিক নাগরিক ও তালিবান হতাহত হয়েছে।

ক্রমবর্ধমান সন্ত্রাসী হুমকিকে কার্যকরভাবে মোকাবেলা করার ক্ষমতা নিয়ে ক্রমবর্ধমান সমালোচনার মধ্যে তালিবান আইএস-খোরাসানের বিরুদ্ধে তাদের কথিত সাফল্যের বিস্তারিত প্রকাশ করেছে।

কিছু কর্মকর্তা যারা ভিওএ এর সঙ্গে কথা বলেছেন তারা এ বিষয় নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেছেন।

তালিবানের এই দাবী যা এখনো যাচাই করা যায়নি সে বিষয়ে কথা বলার জন্য নাম প্রকাশ না করার শর্তে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দপ্তরের একজন মুখপাত্র বলেন, “আমরা তালিবানের দাবি দেখেছি। আমরা লক্ষ্য করেছি যে আইএসআইএস-কে এক শক্ত শত্রু হিসেবে রয়ে গেছে।"

মুখপাত্র বলেন, "তালিবানের স্বার্থে ঐ ভয়ঙ্কর সন্ত্রাসী গোষ্ঠীকে নির্মূল করার প্রচেষ্টা তাদের চালিয়ে যেতে হবে।"

এই সপ্তাহের শুরুতে, আফগানিস্তানে যুক্তরাষ্ট্রের বিশেষ প্রতিনিধি থমাস ওয়েস্ট বলেন আইএস-খোরাসানের হামলার সংখ্যা বৃদ্ধি এবং দক্ষিণ এশিয়ার দেশটিতে আল-কায়দার চলমান উপস্থিতি ওয়াশিংটনের জন্য গভীর উদ্বেগের বিষয়।

XS
SM
MD
LG