অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে সহিংসতায় ৬ জন নিহত


ইউনিয়ন পরিষদের দ্বিতীয় ধাপের নির্বাচনে ভোটাররা ভোট দিতে ভোট কেদ্রে লাইন দিয়েছেন। (ছবি- NewsBangla24.com)

বাংলাদেশের সর্ব নিন্ম স্তরের স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠান ইউনিয়ন পরিষদের দ্বিতীয় ধাপের নির্বাচন বৃহস্পতিবার অনুষ্ঠিত হয়েছে যখন দেশের বিভিন্ন স্থানে সহিংস ঘটনায় অন্তত ৬ জন নিহত এবং অপর শতাধিক লোক আহত হয়েছেন।

দ্বিতীয় ধাপে ৮৩৫ টি ইউনিয়ন পরিষদে আজ নির্বাচন চলাকালে বিভিন্ন স্থানে ভোট কেন্দ্র দখল, জাল ভোট প্রদান এবং আধিপত্য বিস্তারের মত বিভিন্ন ঘটনাকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষ প্রার্থীদের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষে এ সকল হতাহতের ঘটনা ঘটেছে বলে সংবাদ মাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে। পুলিশ পরিস্থিতি আয়ত্তে আনতে ফাকা গুলি বর্ষণ করেছে, কাঁদানে গ্যাস ব্যাবহার করেছে এবং লাঠিচার্জ করেছে।

পুলিশ ও সংবাদ মাধ্যমের খবরে জানা গেছে নির্বাচনী সহিংসতায় নরসিংদি জেলার প্রত্যন্ত চরাঞ্চলের বাঁশগাড়ী ইউনিয়নে ৩ জন, কক্সবাজার জেলার খুরুশকুল ইউনিয়নে ১ জন, কুমিল্লা জেলার মানিকাচর ইউনিয়নে ১ জন এবং চট্টগ্রাম জেলার লেলাং ইউনিয়নে ১ জনসহ ৬ জন নিহত হয়েছেন । তবে দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে নির্বাচনী কর্মকর্তারা জানিয়েছেন বেশীরভাগ নির্বাচন কেন্দ্রে শান্তিপূর্ণ ভাবে ভোট গ্রহন শেষ হয়েছে। তাঁরা জানিয়েছেন যে সকল ইউনিয়ন পরিষদে আজ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে সেখানে এখন ভোট গণনা চলছে।

বাংলাদেশে মোট ৪৫৭১ টি ইউনিয়ন পরিষদ রয়েছে এবং এগুলোর বিভিন্ন পদে যারা নির্বাচিত হন তাদের মেয়াদ ৫ বছর। ২০১৬ সালে অনুষ্ঠিত ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনে যারা নির্বাচিত হয়েছিলেন তাঁদের ৫ বছর মেয়াদ শেষে ২০২১ সালের জুন মাসে প্রথম ধাপে ২০৪ টি ইউনিয়নে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয় । নির্বাচন কমিশন ইতিমধ্যেই তৃতীয় ও চতুর্থ ধাপের নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করেছে । নভেম্বর মাসের ২৪ তারিখে ১,৭০০ টি এবং ডিসেম্বর মাসের ২৩ তারিখে ৮৪০ টি ইউনিয়নে যথাক্রমে তৃতীয় এবং চতুর্থ ধাপের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে।

এদিকে, নির্বাচনী সহিংসতায় হতাহতের ঘটনার বিষয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান সাংবাদিকদের বলেছেন আইন শৃঙ্খলা বাহিনী ইতিমধ্যেই দোষীদের গ্রেফতার করেছে । তিনি বলেন এ ধরনের নির্বাচন যেহেতু আধিপত্যের নির্বাচন এবং গোষ্ঠীর মধ্যে নির্বাচন হয়ে থাকে সে জন্য এখানে একটু ঝগড়াঝাঁটি ও মারামারি হয়েই থাকে। তবে নিরাপত্তা বাহিনী সহিংসতা বন্ধে তাদের কাজ ঠিকমতই করেছে।

অপরদিকে, বাংলাদেশের অন্যতম মানবাধিকার সংগঠন আইন ও সালিশ কেন্দ্র এক প্রতিবেদনে বলেছে চলতি বছরের জুন মাসে শুরু হওয়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে নির্বাচনী সহিংসতায় এ পর্যন্ত অন্তত ৪০ জন নিহত হয়েছেন।

XS
SM
MD
LG