অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

নামিবিয়াকে হারিয়ে সেমিফাইনালের আরও কাছে নিউজিল্যান্ড


নামিবিয়ার জেজে স্মিট এবং নামিবিয়ার রুবেন ট্রাম্পেলম্যান শারজাহ, সংযুক্ত আরব আমিরাতে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ম্যাচের পর নিউজিল্যান্ডের খেলোয়াড়দের সঙ্গে হাত মেলাচ্ছেন।৫ নভেম্বর ২০২১।(ছবি-এপি/কামরান জেব্রেলি)

বিশ্বকাপে নিজেদের চতুর্থ ম্যাচে নামিবিয়াকে ৫২ রানে হারিয়ে সেমিফাইনালে যাওয়ার পথ অনেকটাই পরিস্কার করে নিল নিউজিল্যান্ড। টসে হেরে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে নামিবিয়াকে ১৬৪ রানের লক্ষ্য দেয় কিউইরা।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ১১১ রান সংগ্রহ করতে সক্ষম হয় দলটি।

দুবাইয়ের শারজাহ ক্রিকেট স্টেডিয়ামে শুক্রবার (৫ নভেম্বর) জয়ের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে ভালো শুরু করে নামিবিয়া। কিন্তু পাওয়ার প্লে’র পর অষ্টম ওভারে বল করতে এসেই ওপেনার মাইকেল ভ্যান লিঙ্গেনকে বোল্ড করেন কিউই বোলার জিমি নিশাম। ব্যক্তিগত ২৫ রান করে তার ফেরার পর নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারায় নামিবিয়া। পরের ওভারেই ২১ রানে উইকেট হারান আরেক ওপেনার স্টিফেন বার্ড।

দুই ওপেনারের বিদায়ের পর ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে নামিবিয়া। ইশ শোধির বলে অধিনায়কের বিদায়ের পর এক এক করে উইকেট হারান ডেভিড ভিসে, জ্যান গ্রিন, জ্যান নিকল ও ক্রেইগ উইলিয়ামস। ফলে নির্ধারিত ওভার শেষে নামিবিয়ার সংগ্রহ আসে ১১১ রান। শেষদিকে ৯ ও ৬ রানে মাঠে অপরাজিত ছিলেন জেজে স্মিত ও রুবেন ট্রাম্পেলম্যান।

এর আগে টস হেরে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে ভালো শুরু করলেও বেশিক্ষণ থিতু হতে পারলেন না কিউই ওপেনার মার্টিন গাপটিল। ডেভিড ভিসের বলে ট্রাম্পেলম্যানের হাতে ক্যাচ তুলে ব্যক্তিগত ১৮ রানে প্যাভিলিয়নে ফেরেন তিনি। বেশিক্ষণ থিতু হতে পারেননি আরেক ওপেনার ড্যারিয়েল মিচেলও। স্কলটজের বলে উইকেট হারিয়ে ব্যক্তিগত ১৯ রানে বিদায় নেন তিনি।

এরপর ব্যাট করতে নেমে দলের হাল ধরেন অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন। ১৩তম ওভারে প্রতিপক্ষের অধিনয়াক এরাসমাসের বলে বোল্ড হন তিনি। ব্যক্তিগত ২৮ রান করে প্যাভিলিয়নের পথ ধরেন তিনি। পরের ওভারেই রান আউট হয়ে ১৭ রানে মাঠ ছাড়েন ডেভন কনওয়ে।

পঞ্চম উইকেটে নেমে জিমি নিশামকে সঙ্গে নিয়ে ঝড়ো ব্যাটিংয়ে দলকে ভালো সংগ্রহের দিকে নিয়ে যান গ্লেন ফিলিপস। ব্যাট হাতে দুর্দান্ত খেলে ৩৬ বলে ৭৬ রানের জুটি গড়েন এ দুইজন। ৩ ছয় ও ১ চারে ২১ বলে ৩৯ রান নিয়ে অপরাজিত ছিলেন ফিলিপস। অপরপ্রান্তে ২ ছয় ও ১ চারে ২৩ বলে ৩৫ রান নিয়ে অপরাজিত ছিলেন নিশাম।

XS
SM
MD
LG