অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

নিউইয়র্কে পাঁচ দিনব্যাপী বাংলা বইমেলা শুরু


প্রদীপ প্রজ্বালন করে উদ্বোধনী মঞ্চে অতিথিরা। ছবি-বাংলাদেশ প্রতিদিন।

নিউইয়র্কে শুরু হয়েছে পাঁচ দিনব্যাপী বাংলা বইমেলা। এবার মেলার স্লোগান হচ্ছে, ‘বই আমার শক্তি, বই আমার মুক্তি’। ২৮ অক্টোবর বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় লাগোয়ার্ডিয়া ম্যারিয়ট হোটেলে মুক্তধারা ফাউন্ডেশন আয়োজিত মেলার আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু হয়েছে। কানাডা থেকে ভিডিও বার্তায় মেলার উদ্বোধন করেন কবি আসাদ চৌধুরী। তিনি বলেন, এই বইমেলার মাধ্যমে প্রবাস প্রজন্ম বিশুদ্ধ ভাষা আর সংস্কৃতির সাথে জড়িয়ে থাকার সুযোগ পাবে বলে আশা করছি। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন ওয়াশিংটনে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত এম শহীদুল ইসলাম। তিনি বইমেলার সকলকে বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শুভেচ্ছা বার্তা দেন।

নিউইয়র্ক থেকে সাংবাদিক লাবলু আনসার জানান, মেলা কমিটির আহবায়ক একুশে পদকপ্রাপ্ত বীর মুক্তিযোদ্ধা ড. নূরুন্নবী স্বাগত বক্তব্যতে গভীর শ্রদ্ধায় স্মরণ করেন জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে। বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীর আলোকে ‘গৌরবের ৫০ বছর’ শীর্ষক আলোচনায় রাষ্ট্রদূত ছাড়াও অংশ নেন লেখক-সাংবাদিক মুক্তিযোদ্ধা হারুন হাবীব অংশ। মেলায় এ বছর ‘মুক্তধারা/জেএফবি সাহিত্য পুরস্কার’ পেয়েছেন খ্যাতনামা কথাসাহিত্যিক সমরেশ মজুমদার। করোনার কারণে তিনি উপস্থিত হতে পারেননি। তবে অনলাইনে শুভেচ্ছা দিয়েছেন বইমেলার সকলকে।

উদ্বোধনী পর্বে আরও ছিলেন বইমেলার সাবেক আহবায়ক ড. জিয়াউদ্দিন আহমেদ, নাসিমুন ওয়াহেদ নিনি ও ফেরদৌস সাজেদীন, জাতিসংঘের উন্নয়ন গবেষণা সেলের প্রধান ড. নজরুল ইসলাম, কণ্ঠযোদ্ধা রথীন্দ্রনাথ রায় এবং শহীদ হাসান, মুক্তধারা ফাউন্ডেশনের অন্যতম উপদেষ্টা গোলাম ফারুক ভ‚ইয়া, ডা. ফাতেমা আহমেদ, জাতীয় গ্রন্থ কেন্দ্রের পরিচালক মিনার মনসুর, কবি ফারুক হোসেন, সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব সাবিহা পারভীন, প্রকাশক জসিম উদ্দীন, লেখক-প্রকাশক হুমায়ূন কবীর ঢালী, কবি ও প্রকাশক জাফর আহমেদ রাশেদ, সন্দেশ প্রকাশনার পরিচালক সাইফুর রহমান চৌধুরী, বাংলাদেশ জ্ঞান ও সৃজনশীল প্রকাশনা সংস্থার নির্বাহী মনিরুল হক এবং বাংলাদেশ পুস্তক প্রকাশক ও বিক্রেতা সমিতির প্রাক্তন সভাপতি আলমগীর শিকদার লোটন প্রমুখ। অতিথিদের মেলার পক্ষ থেকে উত্তরীয় পরিয়ে দেয়া হয়। এ পর্বের সমন্বয় করেন হাসান ফেরদৌস এবং ফাহিম রেজা নূর।

বাংলাদেশের সুবর্ণ জয়ন্তী উপলক্ষে বিশেষ সঙ্গীতানুষ্ঠানে অংশ নেন নবনীতা চৌধুরী। স্মৃতিময় একাত্তর পর্বে মুক্তিযুদ্ধের গান পরিবেশন করেন তিন কণ্ঠযোদ্ধা, রথীন্দ্রনাথ রায়, শহীদ হাসান এবং কাদেরি কিবরিয়া। ‘বইমেলার ৩০ বছর’ স্মারক অনুষ্ঠানে অংশ নেন সাবিহা পারভীন, নিনি ওয়াহেদ, হারুন আলী এবং জিয়াউদ্দিন আহমেদ। বইমেলার অনুষ্ঠান বাকি চার দিন হবে জ্যাকসন হাইটসের জুইশ সেন্টারে। থাকছে কবিতার আসর, বসবে কবি-সাহিত্যিকদের আড্ডা। মেলা উপলক্ষে ‘বই আমার শক্তি-বই আমার মুক্তি’ নামক একটি সংকলন প্রকাশিত হয়েছে কামরুন জিনিয়ার সম্পাদনায়।

বইমেলায় নতুন বই নিয়ে অংশ নিয়েছে, বাংলা একাডেমি, অনন্যা, কথাপ্রকাশ, প্রথমা প্রকাশন, অঙ্কুর প্রকাশনী, সন্দেশ প্রকাশনা, আকাশ প্রকাশন, অন্বয় প্রকাশ, বাতিঘর, কবিতা চর্চা ও মুক্তধারা নিউইয়র্ক এবং ঘুংঘুর।

XS
SM
MD
LG