অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

প্রসেনজিতের চিঠি মোদী-মমতাকে, অনলাইনে খাবার অর্ডার করে পাননি


অভিনেতা প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় পূর্ব ভারতীয় শহর কলকাতায় তার ৪৯তম জন্মদিন উদযাপন উপলক্ষে তার নিজস্ব ওয়েবসাইটের লঞ্চ অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখছেন।৩০ সেপ্টেম্বর ২০০৯।(ছবি-রয়তারস/জয়ন্ত শ)

অনলাইন ফুড ডেলিভারি অ্যাপে খাবার অর্ডার করেছিলেন টলিউড অভিনেতা প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়। কিন্তু সেই খাবার তাঁর কাছে এসে পৌঁছায়নি। তাতেই রেগে গিয়ে নালিশ ঠুকেছেন সোজা প্রধানমন্ত্রী আর মুখ্যমন্ত্রীর কাছে।

প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় শিনিবার টুইটারে একটি চিঠি শেয়ার করেছেন। ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে উদ্দেশ্য করে লেখা সেই চিঠিতে তিনি নালিশ করেছেন এক জনপ্রিয় অনলাইন ফুড ডেলিভারি সংস্থার নামে। বলেছেন নিজের তিক্ত অভিজ্ঞতার কথা। তিনি জানিয়েছেন, গত ৩ নভেম্বর তিনি অনলাইনে খাবার অর্ডার করেছিলেন। আগে থেকেই টাকা দেওয়া ছিল। কিছু সময় পর অ্যাপে দেখায় খাবারটি নির্দিষ্ট গন্তব্যে পৌঁছে দেওয়া হয়েছে। কিন্তু অভিনেতার কাছে খাবার এসে পৌঁছয়নি।

বিভ্রান্ত হয়ে সংস্থার সঙ্গে যোগাযোগ করেন প্রসেনজিৎ। তাঁরা সমস্যা শুনে টাকা ফেরত দিয়ে দেন। কিন্তু অভিনেতার প্রশ্ন, কেন এমন হল? কেন টাকা দিয়ে খাবার চেয়েও তিনি পেলেন না? যদি কেউ এই অনলাইন খাবারের উপরেই নির্ভর করে থাকে, তবে কি সেদিনের মতো তাকে না খেয়েই থাকতে হবে? প্রশ্ন তুলে মোদী আর মমতাকে চিঠি লিখেছেন প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়।

অনলাইনে খাবার ডেলিভারি দেয় যে সংস্থাগুলি তাদের বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ নতুন নয়। এর আগেও খাবার চেয়ে পাননি অনেকেই। দেখা গেছে খাবার এসে পৌঁছয়নি, কিন্তু টাকা কেটে নেওয়া হয়েছে। এমন অভিযোগ হামেশাই শোনা গেছে। কোভিডকালে অনেকেই এই অনলাইন খাবারের অ্যাপগুলির উপর ভরসা করে থাকেন। বাড়ি থেকে বেরোনোর সম্ভাবনা এড়ানোর এটিই বিকল্প। কেন এই ধরণের গোলমাল সেখানে হবে, সেই প্রশ্নই তুলেছেন প্রসেনজিৎ, দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী এবং প্রধানমন্ত্রীর।

XS
SM
MD
LG