অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

বাংলাদেশে করোনার ভ্যাকসিন কার্যক্রম কার্যত বন্ধ


বাংলাদেশে করোনার ভ্যাকসিন কার্যক্রম কার্যত বন্ধ

ভ্যাকসিনের মজুদ তলানিতে চলে আসায় বাংলাদেশে করোনার ভ্যাকসিন কার্যক্রম কার্যত বন্ধ হয়ে গেছে।

ভ্যাকসিনের মজুদ তলানিতে চলে আসায় বাংলাদেশে করোনার ভ্যাকসিন কার্যক্রম কার্যত বন্ধ হয়ে গেছে।

ভ্যাকসিন প্রদান কেন্দ্রগুলো থেকে মানুষজনকে ভ্যাকসিন না পেয়েই ফিরে যেতে হচ্ছে। রাজধানী ঢাকার ৪৭টি কেন্দ্রের মধ্যে ২৩টিতে টিকা নেই বলে নোটিশ টানিয়ে দেয়া হয়েছে। ৬৪ জেলার মধ্যে ২৩ জেলায় ভ্যাকসিনের কোনো মজুদ নেই। আজকালের মধ্যেই পুরোপুরি সব কেন্দ্র বন্ধ হয়ে যাবে বলে শঙ্কা প্রকাশ করা হচ্ছে। ভ্যাকসিন না দেয়ার নীতি গ্রহণের পরেও অ্যাস্ট্রাজেনেকার ভ্যাকসিনের মজুদ ১ লাখের নিচে নেমে এসেছে।

স্বাস্থ্য দপ্তরের আশঙ্কা, জুন মাস স্বস্তিকর হবে না
স্বাস্থ্য দপ্তরের আশঙ্কা, জুন মাস স্বস্তিকর হবে না

এ অবস্থায় চীন থেকে প্রতি ডোজ ১০ ডলার দামে দেড় কোটি ডোজ ভ্যাকসিনে কেনার বিষয়টি চূড়ান্ত হলেও শেষ পর্যন্ত দেখা দিয়েছে বড় ধরনের জটিলতা। ১০ ডলার দামের বিষয়ে গোপনীয়তার যে শর্ত চীন জুড়ে দিয়েছিল, তা বাংলাদেশের সংবাদমাধ্যমে প্রকাশের পরে এ জটিলতা দেখা দিয়েছে। চীন শর্তভঙ্গের অভিযোগ তুলেছে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে। এমন পরিস্থিতিতে নির্ধারিত ১০ ডলার দামে চীন থেকে আর ভ্যাকসিনে পাওয়া যাবে কিনা, তা নিয়ে সংশয় প্রকাশ করেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আব্দুল মোমেন। তিনি সংবাদমাধ্যমকে বলেছেন, এখন বেশি দামে চীন থেকে ভ্যাকসিন কিনতে হতে পারে। এমত পরিস্থিতিতে চীনের কাছে দুঃখপ্রকাশ করে চিঠি দেয়া হয়েছে বলে সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য দফতরের মহাপরিচালক ডা. খোরশেদ আলম।

এদিকে, করোনা মোকাবেলায় চীনের সিনোভ্যাক ভ্যাকসিনের জরুরি ব্যবহারের অনুমোদন দিয়েছে বাংলাদেশের ওষুধ প্রশাসন অধিদপ্তর। ...ঢাকা থেকে আমীর খসরু

বাংলাদেশে করোনার ভ্যাকসিন কার্যক্রম কার্যত বন্ধ
please wait

No media source currently available

0:00 0:02:01 0:00


XS
SM
MD
LG