অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

বাউল শিল্পীকে লাঞ্ছনার অভিযোগে তিনজন আটক 


বগুড়ার বাউল শিল্পী মেহেদী হাসানের মাথার চুল কেটে ন্যাড়া করে দেয়ার অভিযোগে তিনজন আটক 

ঘুম থেকে ডেকে নিয়ে মারপিট করে বগুড়ার বাউল শিল্পী মেহেদী হাসানের মাথার চুল কেটে ন্যাড়া করে দেওয়া হয়েছে। পুলিশ এই ঘটনায় আটক করেছে তিনজনকে। মেহেদির বাড়ি শিবগঞ্জ উপজেলার জুড়ি মাঝপাড়া গ্রামে। বাউলের পোশাক পরে, লম্বা চুল রেখে গান করতো মেহেদি। স্থানীয় গ্রাম্য মাতবররা তাকে বাউল গান ছাড়তে বলে। এতে সম্মত না হওয়ার কারণেই এই ঘটনা।

পুলিশের হাতে আটক তিন গ্রাম্য প্রভাবশালী হচ্ছেন, মেজবাউল ইসলাম (৫২), একই গ্রামের শফিউল ইসলাম খোকন (৫৫) ও তারেক রহমান (২০)। মঙ্গলবার রাতে শিবগঞ্জ থানা পুলিশ উপজেলার জুড়ি মাঝপাড়া গ্রামে অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করে। জানা যায়, মেহেদী হাসান গত কয়েক বছর ধরে মতিন বাউলের সঙ্গে বিভিন্ন অনুষ্ঠানে বাউল গান গেয়ে উপার্জিত টাকায় সংসার চালাতো। পোশাক পরতো সাদা লুঙ্গি, সাদা ফতুয়া এবং সাদা গামছা। মাথায় ছিল বাবরী (লম্বা) চুল রাখে।

অভিযোগ বলা হয়, গ্রেফতারকৃত ব্যক্তিরা মেহেদী হাসানের পরনের পোশাক এবং মাথার চুল নিয়ে বিভিন্ন সময় অশালীন মন্তব্য ও কটাক্ষ করত। অভিযোগে আরও বলা হয়, এর প্রতিবাদ করায় গ্রেফতারকৃতরা পাড়ার আরও কয়েকজন নিয়ে গত ১৮ সেপ্টেম্বর রাতে মেহেদীর বাড়িতে যায়। তারা মেহেদীকে ঘুম থেকে ডেকে তুলে জোর করে চুল কাটার মেশিন দিয়ে মাথা ন্যাড়া করে দেয়।

ঘটনার পর থেকে লজ্জা ও ভয়ে বাড়ির বাইরে যায়নি মেহেদী। শিবগঞ্জ থানার ওসি সিরাজুল ইসলাম জানান, ঘটনাটি অত্যন্ত অমানবিক। এ কারণে মাথা ন্যাড়া করে দেওয়ার সংবাদ পেয়েই তিন জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আরও দুজন পলাতক রয়েছে। তাদের গ্রেফতার করতে অভিযান চলছে। বাউল শিল্পীর নিরাপত্তা নিশ্চিত করা হয়েছে বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

XS
SM
MD
LG