অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

বাবরি মসজিদ ধ্বংস নিয়ে আর কোনো উৎসব বা প্রতিবাদ হবে না


বাবরি মসজিদ ধ্বংস নিয়ে আর কোনো উৎসব বা প্রতিবাদ হবে না

উত্তরপ্রদেশের অযোধ্যার হিন্দু ও মুসলমানরা ঠিক করেছেন বাবরি মসজিদ ধ্বংস নিয়ে তাঁরা আর কোনও আনন্দ উৎসব অথবা প্রতিবাদ আন্দোলন করবেন না।

উত্তরপ্রদেশের অযোধ্যার হিন্দু ও মুসলমানরা ঠিক করেছেন বাবরি মসজিদ ধ্বংস নিয়ে তাঁরা আর কোনও আনন্দ উৎসব অথবা প্রতিবাদ আন্দোলন করবেন না।

আগে অযোধ্যার মুসলমানরা আজকের দিনটি ৬ই ডিসেম্বর বাবরি মসজিদ ধ্বংস হওয়ার জন্য শোক দিবস পালন করতেন, শহরের নানা জায়গায় কালো পতাকা টাঙিয়ে এবং তাঁদের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রেখে।

অন্যদিকে হিন্দুরাও এই দিনটি পালন করতেন শৌর্য দিবস অথবা বীরত্বের দিন হিসেবে। কিন্তু বাবরি মসজিদ ধ্বংসের পর ২৮ বছর কেটে গিয়েছে।

ইতিমধ্যে ভারতের সুপ্রিম কোর্ট বহু পুরনো রামজন্মভূমি মামলায় ওই চত্বরে রাম মন্দির নির্মাণের এবং অযোধ্যাতে অন্য আর একটি জায়গায় মুসলমানদের জন্য মসজিদ নির্মাণের রায় দিয়েছে। সেই অনুযায়ী মন্দিরের ভূমি পুজো হয়ে গিয়েছে, ওদিকে মসজিদের প্রাথমিক কাজকর্মও শুরু হয়েছে। এই অবস্থায় পুরনো ওই বিসম্বাদ জিইয়ে রেখে হিন্দু ও মুসলমান সম্প্রদায়ের মধ্যে নতুন করে বিবাদের সম্ভাবনা এড়াতে চাইছেন সকলেই।

মুসলমানরা যেমন ঠিক করেছেন, এ বছর থেকে তাঁরা আর এই দিনটিতে শোক দিবস পালন করবেন না। তেমন রাম মন্দিরের অন্যতম ট্রাস্টি মোহন্ত কমলনয়ন হিন্দুদের কাছে আর্জি জানিয়েছেন, যাতে তাঁরা আর শৌর্য দিবস পালন না করেন। এইভাবে দুই সম্প্রদায় পুরনো শত্রুতা ভুলে ভবিষ্যতের দিকে এগিয়ে যাওয়ার অঙ্গীকার করেছে। দীপংকর চক্রবর্তী, ভয়েস অফ আমেরিকা, কলকাতা

please wait

No media source currently available

0:00 0:01:25 0:00
সরাসরি লিংক


XS
SM
MD
LG