অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

বুধবার নির্বাচনী সহিংসতায় সাতজন প্রাণ হারিয়েছে


পঞ্চম ধাপে ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে বাংলাদেশের মুন্সিগঞ্জের একটি নির্বাচনী কেন্দ্রে ভোটারদের লাইন। (ফাইল ফটো- মাহমুদ হোসেন অপু/ এপি)

বুধবার পঞ্চম ধাপে ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনী সহিংসতায় মানিকগঞ্জে, নওগাঁয়, গাইবান্ধা, চাঁদপুর, বগুরা ও চট্টগ্রামে সাতজন নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

নওগাঁ: নওগাঁয় পত্নীতলা উপজেলায় ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে পুলিশ ও সমর্থকদের সংঘর্ষ ঘটনা ঘটেছে। এতে গুলিবিদ্ধ হয়ে একজন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় পুলিশের গাড়িতে আগুন দিয়েছে বিক্ষুব্ধরা।

নওগাঁ পুলিশ সুপার (এসপি) আবদুল মান্নান মিয়া বাংলানিউজকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

গাইবান্ধা: গাইবান্ধার সাঘাটা উপজেলার জুম্মারবাড়ী ইউনিয়নের একটি ভোট কেন্দ্রের বাইরে আবু তাহের (৩৮) নামে এক মেম্বার প্রার্থীর সমর্থককে গলা কেটে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। প্রতিদ্বন্দ্বী মেম্বার প্রার্থী রাসেল আহমেদের (ফ্যান প্রতীক) কর্মী-সমর্থকদের হামলার শিকার হন বলে অভিযোগ স্বজনদের।

বিকেল পৌনে ৩টার দিকে সাঘাটা উপজেলার জুম্মাবাড়ি ইউনিয়নের ৪ নম্বর ওয়ার্ডের জুম্মাবাড়ি আদর্শ কলেজ কেন্দ্রের বাইরে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত আবু তাহের জুম্মারবাড়ি ইউনিয়নের মামুদপুর গ্রামের মো. ওমর আলীর ছেলে। আবু তাহের মেম্বার প্রার্থী আইজল মিয়ার (টিউবওয়েল প্রতীক) সমর্থক ছিলেন।

চাঁদপুর: চাঁদপুরের কচুয়া ও হাইমচরে নির্বাচনী সহিংসতায় দুই ব্যক্তি নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। ইউপি সদস্যদের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষে ছুরিকাঘাতে শরীফ নামে একজন নিহত হন কচুয়া উপজেলার সাচার ইউনিয়নের হাতিরবন্ধ কেন্দ্রের বাইরে।

আরেকজনের মৃত্যু হয় হাইমচর উপজেলার নীলকমল ইউনিয়নের ইশানবালা ৬ নম্বর ওয়ার্ডে। তবে তার নাম এখন পর্যন্ত জানা যায়নি। দুই চেয়ারম্যান প্রার্থীর মধ্যে সংঘর্ষের সময় ককটেল বিস্ফোরণ ঘটাতে গিয়ে তিনি গুরুতর আহত হন।

হাইমচর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহবুবুর রহমান মোল্লা বাংলানিউজকে বলেন, "নীল কমল ইউনিয়নে একজন নিহত হয়েছেন। তবে তার নাম-পরিচয় জানা যায়নি। অজ্ঞাতনামা হিসেবে আছেন। পরে বিস্তারিত জানানো হবে।"

সন্ধ্যার দিকে চাঁদপুর পুলিশ সুপার (এসপি) মো. মিলন মাহমুদ বাংলানিউজকে বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

বগুড়া: বগুড়ার গাবতলী উপজেলার রামেশ্বরপুর ইউপি নির্বাচনে প্রতিপক্ষের ছুরিকাঘাতে জাকির হোসেন (৩৫) নামে এক যুবক নিহত হয়েছেন।

দুপুরে উপজেলার রামেশ্বরপুর ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ডের জাইগুলি উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রের পাশে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত জাকির একই উপজেলা জাইগুলি উত্তরপাড়া এলাকার মৃত লয়া মিয়ার ছেলে। তিনি পেশায় একজন রং মিস্ত্রি ছিলেন। এছাড়া জাকির নিরাপদ সড়ক চাই সংগঠনের একজন সক্রিয় সদস্য ছিলেন বলে জানা গেছে।

গাবতলী থানার ওসি জিয়া লতিফুল ইসলাম বাংলানিউজকে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন।

চট্টগ্রাম: চট্টগ্রামের আনোয়ারা উপজেলায় নির্বাচনী সহিংসতায় অংকুর দত্ত (৩৮) নামে একজন নিহত হয়েছেন। অংকুর সিংহরা দত্তবাড়ীর নেপাল দত্তের ছেলে।

দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে আনোয়ারার চাতরী ইউনিয়নের ৭ নম্বর ওয়ার্ডে এ ঘটনা ঘটে বলে জানান থানা নির্বাচন কর্মকর্তা সৈয়দ মো. আনোয়ার খালেদ।

জানা গেছে, আপেল প্রতীকের মেম্বার প্রার্থীর সমর্থকদের হামলায় আহত হন অংকুর। তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হয়। পরে চমেক হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা মৃত ঘোষণা করেন। মরদেহ মর্গে পাঠানো হয়েছে।

আনোয়ারা থানার ওসি এসএম দিদারুল ইসলাম সিকদার বাংলানিউজকে বলেন, সিংহরা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্র এলাকায় মেম্বার প্রার্থী রঘুনাথ শিকদার ও নাজিম উদ্দীনের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। সংঘর্ষে অংকুর নিহত হন।

মানিকগঞ্জ: মানিকগঞ্জের দৌলতপুর উপজেলার বাচামারা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ভোট দিতে গিয়ে নির্বাচনী সহিংসতার মধ্যে পড়ে স্ট্রোকে ছলেমন খাতুন (৫০) নামে এক নারীর মৃত্যু হয়েছে।

দুপুরের দিকে উপজেলার ওই বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রে মেম্বার প্রার্থীর সমর্থকদের সঙ্গে সংঘর্ষের সময় ওই নারীর প্রাণহানির ঘটনা ঘটে। ছলেমন দৌলতপুরের বাচামারা গ্রামের খোরশেদ আলমের স্ত্রী।

XS
SM
MD
LG