অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ভারতে ২৪ ঘণ্টায় আড়াই লাখ রোগী শনাক্ত


ভারতের জম্মুতে একটি বাস স্টেশনে একজন স্বাস্থ্যকর্মী কোভিদ-১৯ পরীক্ষা করার জন্য একজন যাত্রীর কাছ থেকে নমুনা সংগ্রহ করছেন।১৩ জানুয়ারী ২০২২। (ছবি-এপি/চান্নি আনন্দ)

ভারতে গত ২৪ ঘণ্টায় দুই লাখ ৪৭ হাজার ৪১৭ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে দেশটিতে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা তিন কোটি ৬৩ লাখ ১৭ হাজার ৯২৭ জনে পৌঁছেছে।

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রক জানিয়েছে, দেশের ২৮টি রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে সংক্রমণের হার ১৩ শতাংশের বেশি। দিল্লী, মহারাষ্ট্র, পশ্চিমবঙ্গে করোনা গ্রাফ বাড়ছে। এর মধ্যে পশ্চিমবঙ্গে দৈনিক করোনা সংক্রমণের হার ৩০ শতাংশের বেশি।

আক্রান্তের সংখ্যা বাড়লেও মৃত্যু বাড়েনি। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে প্রাণ হারিয়েছেন ৩৮০ জন। সুস্থতার হারও ৯৫ শতাংশের কাছাকাছি। স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা বলছেন, আক্রান্তেরা দ্রুত সেরেও উঠছেন, তবে সংক্রমণ বেড়েই চলেছে। রাজ্যে রাজ্যে কোভিড পজিটিভিটি রেট বেড়েছে। চিকিৎসক, স্বাস্থ্যকর্মীরাও সংক্রমিত হয়ে পড়ছেন।

গত কয়েক দিন ধরেই দেশে দৈনিক সংক্রমণের হার ১০ শতাংশ ছাড়িয়ে গেছে। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের রিপোর্ট বলছে, দেশের ২৯টি রাজ্যে সংক্রমণের হার ১৩ শতাংশের বেশি। পাল্লা দিয়ে বাড়ছে ওমিক্রন রোগীর সংখ্যা। পাঁচ হাজার ছাড়িয়ে গেছে এর মধ্যেই।

সংক্রমণের হারে দেশের মধ্যে শীর্ষে পৌঁছে গেছে পশ্চিমবঙ্গ। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের রিপোর্ট বলছে, পশ্চিমবঙ্গে বর্তমানে সংক্রমণের হার ৩২.১৮ শতাংশ। দ্বিতীয় স্থানে থাকা মহারাষ্ট্রে ২২.৩৯ এবং তৃতীয় স্থানে থাকা দিল্লীতে ২৩.১ শতাংশ।

স্বাস্থ্যমন্ত্রক জানাচ্ছে, দেশের ১২০টি জেলায় কোভিড পজিটিভ রোগীর সংখ্যা বাড়ছে। সেকেন্ড ওয়েভের সময় ঠিক যেভাবে পজিটিভিটি রেট ঊর্ধ্বে চড়েছিল, তেমনই সংক্রমণের বাড়ছে দেশে। চিন্তার বিষয় হল উপসর্গহীন রোগীর সংখ্যাও বাড়ছে দেশে। সংক্রমণের বাহ্যিক লক্ষণ না থাকায় উপসর্গহীন বা অ্যাসিম্পটোমেটিকদের সংস্পর্শ থেকে সংক্রমণ ছড়াচ্ছে আরও অনেকের মধ্যে।

XS
SM
MD
LG