অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ভারত চীন সেনা প্রত্যাহারের প্রক্রিয়া চলছে


ভারত চীন সেনা প্রত্যাহারের প্রক্রিয়া চলছে

অনেকদিন ধরেই আলোচনা চলছে, ব্রহ্মপুত্র নদের উচ্চগতিতে জলাধার তৈরি করে বিদ্যুৎ উৎপাদন করবে চিন। একদিকে ভারত চীন দু’দেশের সেনা প্রত্যাহারের প্রক্রিয়া যখন চলছে, তখনই ফের আলোচনায় উঠে এল জলাধার তৈরির প্রসঙ্গ।

অনেকদিন ধরেই আলোচনা চলছে, ব্রহ্মপুত্র নদের উচ্চগতিতে জলাধার তৈরি করে বিদ্যুৎ উৎপাদন করবে চিন। একদিকে ভারত চীন দু’দেশের সেনা প্রত্যাহারের প্রক্রিয়া যখন চলছে, তখনই ফের আলোচনায় উঠে এল জলাধার তৈরির প্রসঙ্গ।

কারণ এতদিন আলোচনা স্তরে থাকা এই জলাধার প্রকল্পের নির্মাণ কাজ শুরু করতে চলেছে চিন। আজ সোমবারই তিব্বতের কমিউনিস্ট পার্টি-র পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, এই প্রকল্পের কাজ চিনের দ্রুত শুরু করা উচিত। তারপর থেকেই নতুন করে এই নিয়ে আলোচনা শুরু হয়েছে।ব্রহ্মপুত্র নদের মোট গতিপথ প্রায় ২ হাজার ৯০০ কিলোমিটার।

ভারত, তিব্বত ও বাংলাদেশের মধ্যে দিয়ে এটি প্রবাহিত হয়েছে। চিনের পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনায় গত সপ্তাহেই উল্লেখ করা হয় ২০২১ থেকে ২০২৫ সালের মধ্যে এটি তৈরি করে ফেলা হবে। চিনের সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, সে দেশ নদের উপর প্রায় ৬০ গিগাওয়াটের বিদ্যুৎ প্রকল্প তৈরি করার ক্ষমতা রাখে। এই প্রকল্প সম্পূর্ণ হলে পৃথিবীর বৃহত্তম জলবিদ্যুৎ প্রকল্পের তকমা পাবে।

এর আগে চিনেরই ২২.৫ গিগাওয়াটের একটি জলাধার এই তালিকায় সবার উপরে ছিল।চিনের এই প্রকল্প রূপায়ণের বিষয়ে আগাগোড়াই আপত্তি জানিয়ে আসছে ভারত। কারণ, প্রথম থেকেই ভারত জানায়, নদের উচ্চ গতিপথে জলাধার বানালে ভারতে জলসংকট তৈরি হতে পারে। হড়পা বান থেকে বর্ষায় বন্যার মতো সমস্যাও দেখা যেতে পারে ভারতে। সেই কারণেই ভারত বারবার এই জলাধার নির্মাণের প্রশ্নে চিনের বিরোধিতা করে এসেছে।

please wait

No media source currently available

0:00 0:01:22 0:00



XS
SM
MD
LG