অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

যুক্তরাষ্ট্রের ক্যাপিটলে গত ৬ জানুয়ারি হামলার সন্দেহভাজনদের বিরুদ্ধে তদন্ত চালিয়ে যাচ্ছে এফবিআই


যুক্তরাষ্ট্রের ক্যাপিটল হিলের পুলিশ সাইকেল অফিসার ওয়াশিংটনে ক্যাপিটলের পূর্ব দিকের প্লাজায় টহল দিচ্ছেন।৫ জানুয়ারী ২০২২।(ছবি-এপি/জ্যাকলিন মার্টিন)

সন্দেহভাজন ঐ ব্যক্তির পুরো শরীর মাথা থেকে পা পর্যন্ত ঢাকা ছিল। রাজধানীর অন্ধকার রাস্তা দিয়ে অগোচরে হেঁটে গিয়ে রিপাবলিকান এবং ডেমোক্রেটিক জাতীয় কমিটির অফিসের বাইরে দুটি বিস্ফোরক রেখে আসে।

এর মাত্র ১৭ ঘন্টা পর যখন যুক্তরাষ্ট্রের ক্যাপিটলে ট্রাম্পপন্থী দাঙ্গাবাজরা হামলা চালায় তার ঠিক আগ মুহূর্তে পাইপ বোমাগুলি পাওয়া যায়। এটি দ্রুত এফবিআই এবং বিচার বিভাগের জন্য সর্বোচ্চ অগ্রাধিকারের তদন্তে পরিণত হয়।

কিন্তু তার পরপরই ঐ ঘটনার সব আলামত হারিয়ে যেতে শুরু করে। এক বছর পর, কেন্দ্রীয় তদন্তকারীরা ঐ সন্দেহভাজন ব্যক্তির পরিচয় জানার কাছাকাছিও নেই। এবং একটি মূল প্রশ্ন থেকে যায়: পাইপ বোমা এবং ক্যাপিটলে দাঙ্গার মধ্যে কোন সংযোগ ছিল কিনা?

গত জানুয়ারি মাসের মারাত্মক বিদ্রোহের পর এফবিআই এখনও কয়েক শ লোককে খুঁজে বের করার চেষ্টা করছে যার মধ্যে ঐ সন্দেহভাজন ব্যক্তিও আছে । এখন পর্যন্ত ক্যাপিটলে ভিডিওতে দেখা ২৫০ জন লোক যারা পুলিশকে আক্রমণ করেছিল তাদের এখনও এফবিআই সম্পূর্ণরূপে শনাক্ত এবং গ্রেপ্তার করতে পারেনি। দাঙ্গার সাথে জড়িত অন্যান্য অপরাধের জন্য আরও ১০০ জনের খোঁজ করা হচ্ছে।

এই তদন্ত কেন্দ্রীয় আইন প্রয়োগকারী কর্মকর্তাদের জন্য এক বিশাল উদ্যোগ। ৬ জানুয়ারী হামলা থেকে উদ্ভূত কেন্দ্রীয় অপরাধের জন্য ৭০০ জনেরও বেশি লোককে অভিযুক্ত করা হয়েছে এবং এখনও নিয়মিত গ্রেফতার করা হচ্ছে।

কিন্তু এই মামলায় কাজ করা এফবিআই এজেন্টদের কাজ এখনো শেষ হয়নি। এজেন্ট এবং তদন্তকারী বিশ্লেষকরা কয়েক হাজার ঘন্টার নজরদারি ভিডিও দেখে চলেছেন। ভিডিওগুলোর প্রতিটি সেকেন্ড দেখছেন এবং ক্যাপিটলের ভিতরে অফিসারদের উপর হামলাকারী লোকদের স্পষ্ট চিত্র ধারণের চেষ্টা করছেন।

XS
SM
MD
LG