অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

রাশিয়ার কয়লা খনিতে অন্ততঃ ১৪ জন নিহত, মৃতের সংখ্যা বাড়ার আশংকা


রাশিয়ার কেমেরোভো অঞ্চলের লিস্টভ্যাজনায়া কয়লা খনিতে আগুনের পরে বিশেষজ্ঞরা উদ্ধার অভিযানে অংশ নিচ্ছেন। ২৫ নভেম্বর ২০২১। (ছবি- রয়টার্স/ অ্যালেক্সান্ডার প্যাত্রিন)

রাশিয়ার সাইবেরিয়ার একটি কয়লা খনিতে বৃহস্পতিবার দুর্ঘটনায় কমপক্ষে ১৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে তিনজন উদ্ধারকারী। স্থানীয় কর্তৃপক্ষ এবং জরুরি সেবাদানকারী দল জানিয়েছে বিস্ফোরণের ঝুঁকির কারণে ভূগর্ভে আরও কয়েক ডজন লোককে উদ্ধার করার অভিযান স্থগিত করা হয়েছে।

কয়লা খনির এই দুর্ঘটনা আরও একটি ভয়াবহ মোড় নিয়েছে। জরুরী মন্ত্রক জানিয়েছে যে উদ্ধারকারীদের একটি দলকে নিখোঁজ ঘোষণা করা হয় যখন তারা নির্দেশমতে অন্য উদ্ধারকারী ইউনিটের সঙ্গে মাটির ওপরে ফিরে আসতে ব্যর্থ হয়।ঠিক কতজন উদ্ধারকারী নিখোঁজ রয়েছে তা জানায়নি মন্ত্রণালয়।

তাস সংবাদ মাধ্যম স্থানীয় জরুরি পরিষেবার বরাত দিয়ে জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার ভোরে তুষারবেষ্টিত কেমেরোভো অঞ্চলের লিস্টভ্যাজনায়া খনিতে একটি বায়ুচলাচল করার খাদে কয়লার ধূলিকণাতে আগুন ধরে গেলে ধোঁয়ায় আছন্ন হয়ে যায় খনিটি।

আঞ্চলিক গভর্নর সের্গেই সিভিলেভ বলেছেন, "বিস্ফোরণের সম্ভাবনা খুবই বেশি। গ্যাসের ঘনত্ব না কমা পর্যন্ত আমরা অনুসন্ধান ও উদ্ধার অভিযান স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।" তিনি জানান মিথেনের মাত্রা বিপজ্জনকভাবে বেশি ছিল।

সিভিলেভ তার টেলিগ্রাম চ্যানেলে বলেন, "আপাতত, কোনও ঘন ধোঁয়া নেই, তাই আমরা আশা করছি যে ভেতরে কোনও আগুনও নেই।এই লোকদের সঙ্গে আমাদের কোন যোগাযোগ নেই, ভূগর্ভস্থ যোগাযোগ ব্যবস্থা কাজ করছে না।"

খনিটি এসডিএস-হোল্ডিং-এর অংশ, যার মালিকানা ব্যক্তিগতভাবে সাইবেরিয়ান বিজনেস ইউনিয়নের। ইউনিয়নের তাৎক্ষণিক কোনো মন্তব্য পাওয়া যায়নি। গভর্নর জানান উদ্ধার অভিযান স্থগিত করার আগে খনিতে বিদ্যুৎ এবং বায়ুচলাচল ছিল, তবে মাটির অনেক গভী্রে থাকা কিছু লোকের সঙ্গে তারা যোগাযোগ হারিয়েছে।

আরআইএ-এর তথ্য মতে আঞ্চলিক গভর্নর সের্গেই সিভিলেভ জানান ঐ ঘটনায় ১১ জন মারা গেছে এবং ৩৫ জন এখনও মাটির নিচে আটকে রয়েছে। কয়েক ডজন লোক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে, যাদের মধ্যে কিছু লোক ধোঁয়ার বিষক্রিয়ায় আক্রান্ত। চারজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

ভিডিও ফুটেজে উদ্ধারকর্মী এবং অ্যাম্বুলেন্সগুলিকে খনির স্থানে আসতে দেখা যায়। মস্কো থেকে প্রায় ৩৫০০ কিলোমিটার (২১৭৫ মাইল) পূর্বে ঐ অঞ্চলে তুষারপাত হওয়ায় পুলিশ ঐ এলাকার বাইরে আটকে আছে।

জরুরী মন্ত্রক জানিয়েছে, বায়ুচলাচল খাদ দিয়ে ধোঁয়া ছড়িয়ে পড়ার সময় প্রায় ২৮৫ জন খনির ভিতরে ছিলেন।কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, তাদের মধ্যে ২৩৯ জন মাটির উপরে চলে আসতে সক্ষম হন।

XS
SM
MD
LG