অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

২০১৫ সালের প্যারিস হামলার বিচার নয় মাস ধরে চলতে পারে


২০১৫ সালের ১৩ই নভেম্বর প্যারিস রেস্টুরেন্টে হামলার পর আহতদের সহায়তায় স্বাস্থ্য কর্মীরা- ফাইল ফটো- এপি

আগামী নয় মাসে ২০১৫ সালের প্যারিস হামলায় অভিযুক্ত ২০ জনের বিচার শেষ হবে। যে দশজনের দল সেই সমন্বিত হামলা করেছিল বলে ধারণা করা হয়, তাদের মধ্যে মাত্র একজন জীবিত আছে।

বিচারকার্যের প্রথম দিন বুধবার আদালতে আনা অভিযুক্ত ১৪ জনের মধ্যে সালাহ আবদেসলামের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড হতে পারে। ছয়জন এখনো পলাতক রয়েছে।

নয় মাসের বিচার কার্যক্রম শুরুর লক্ষ্যে কড়া নিরাপত্তার মধ্যে তাদেরকে প্যারিস কোর্ট হাউসে আনা হয়।

২০১৫ সালের ১৩ই নভেম্বরের সেই সিরিজ হামলায় জড়িত সন্দেহে ২০ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ দাখিল করা হয়। হামলায় ১৩০ জন মারা যান এবং ৩৫০ জন আহত হন।

ছয় জন পলাতক রয়েছে অথবা মারা গেছে এবং তাদের অনুপস্থিতিতেই বিচার সম্পন্ন হবে।

সালাহ আবদেসলাম তার আত্মঘাতী পোষাক ফেলে বেলজিয়ামে পালিয়ে যান। চার মাস পর সেখান থেকে তাকে আটক করা হয়।

বুধবার বিচার শুরু হলে আদালত তার নাম জিজ্ঞেস করলে আবদেসলাম বলেন আল্লাহই একমাত্র সৃষ্টিকর্তা, এবং সবকিছু ছেড়ে সে ইসলামিক ষ্টেটের যোদ্ধা হবার অঙ্গীকার করেছে।

পূর্ব প্যারিসের বাটাক্লান কনসার্ট হল, ষ্টেড দে ফ্রান্স ফুটবল স্টেডিয়াম, কয়েকটি ক্যাফে ও রেস্টুরেন্টে ঘটানো সেই হামলার পরিকল্পনা ও হামলা সম্পন্ন করার দায় স্বীকার করেছে আইসিস।

বাটাক্লান হামলা থেকে বেঁচে যাওয়া ৮ জনের উকিল ভিক্টর এদুও বলেন আবদেসলামর কাছ থেকে এসব কথা শোনা তাঁর মক্কেলদের জন্যে বড় কষ্টের। মামলাটির বিচার শুরু হয়তে ছয় বছর লাগল।

এই মামলার সঙ্গে জড়িত আছেন ১৮শ মানুষ যাদের মধ্যে রয়েছেন হামলা থেকে বেঁচে যাওয়া মানুষেরা এবং তাঁদের পরিবারের সদস্যরা।

মামলায় যুক্ত আছেন ৩৩০ জন উকিল এবং ৫৪২টি নথি।

অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে খুন, খুনের প্রচেষ্টা, অস্ত্র ও অর্থ প্রদান এবং সন্ত্রাসী হামলার ষড়যন্ত্র রয়েছে। তাদের যাবজ্জীবন সাজা হতে পারে।

XS
SM
MD
LG