অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

সিআইএ প্রধান আফগানিস্তান নিয়ে আলোচনার জন্য পাকিস্তান, ভারত সফর করেছেন


ইন্টার সার্ভিসেস পাবলিক রিলেশন্স কর্তৃক প্রকাশিত এই ছবিতে, সিআইএ ডিরেক্টর উইলিয়াম বার্নস, পাকিস্তান সফরকালে, পাকিস্তানের সেনাপ্রধান জেনারেল কামার জাভেদ বাজওয়ার সাথে সাক্ষাৎ করতে দেখা যাচ্ছে। রাওয়ালপিন্ডি, পাকিস্তান, ৯ই সেপ্টেম্বর, ২০২১, ছবি-এপি

যুক্তরাষ্ট্রের কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থার পরিচালক উইলাম বার্নস এই সপ্তাহে আফগানিস্তানের পরিস্থিতি এবং তার ভবিষ্যৎ নিয়ে আলোচনা করতে ভারত ও পাকিস্তানে যান।

বুধবার ইসলামাবাদে বার্নস পাকিস্তানি সেনাবাহিনীর প্রধান জেনারেল কামার জাভেদ বাজওয়া এবং পাকিস্তানের গোয়েন্দা প্রধান লেফটেন্যান্ট জেনারেল ফয়েজ হামিদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন।

সামরিক বাহিনীর জনসংযোগ শাখার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, “পাকিস্তান এই অঞ্চলে শান্তি এবং আফগান জনগণের একটি স্থিতিশীল ও সমৃদ্ধ ভবিষ্যত নিশ্চিত করতে তার আন্তর্জাতিক অংশীদারদের সঙ্গে সহযোগিতা করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।”

পাকিস্তান শত শত মানুষকে সাহায্য করার জন্য ইউরোপের বেশ কয়েকটি দেশ সহ অনেক দেশের সাথে কাজ করেছে, অনেক আফগান যারা তালিবান সরকারের অধীনে ঝুঁকিপূর্ণ বলে বিবেচিত, তাদের সীমান্ত দিয়ে চলে আসতে সাহায্য করেছে। তাদের আগমনের পর ভিসা বা অন্যান্য ট্রানজিট কাগজপত্র দিয়ে সাহায্য করেছে।

কাবুলে পাকিস্তানি দূতাবাস, মিডিয়া সংস্থা এবং অন্যান্য বেসরকারি সংস্থার অনুরোধে শত শত আফগানকে ভিসা দিয়েছে।

গত মাসে কাবুল ভ্রমণের পরে বার্নস মঙ্গলবার নয়াদিল্লি সফর করেন। যুক্তরাষ্ট্রের কর্মকর্তারা বলেছেন, তিনি তালিবান শীর্ষ রাজনৈতিক নেতা আবদুল গণি বড়দারের সঙ্গে দেখা করেছেন। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আফগানিস্তান থেকে মানুষকে সরিয়ে নেওয়ার আলোচনার মধ্যেই এই সাক্ষাৎ হয়েছে।


বার্নসের ভারত সফরের সময় রাশিয়ার গোয়েন্দা প্রধান নিকোলাই পাত্রুশে্ফও সফর করেন। গত সপ্তাহে ব্রিটিশ গোয়েন্দা প্রধান রিচার্ড মুর ভারত সফর করেন।

ভারতের প্রচার মাধ্যম বলছে, তিন গোয়েন্দা প্রধান ভারতের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত ডোভাল ও অন্যদের সাথে সাক্ষাৎ করেন এবং তালিবানের আফগানিস্তান দখলের সাথে সম্পর্কিত নিরাপত্তা বিষয় নিয়ে আলোচনা করেছেন।


ভারতীয়দের সঙ্গে তার বৈঠকে, বার্নস আফগানিস্তান নিয়ে একটি যৌথ কৌশল তৈরির সম্ভাবনা নিয়ে আলোচনা করেছিলেন। ভারত সরকারের পক্ষ থেকে এক সূত্র গণমাধ্যমের সাথে কথা বলার জন্য অনুমোদন না থাকার কারণে নাম প্রকাশ না করার শর্তে ভয়েস অফ আমেরিকাকে এ কথা বলেন।

ঐ কর্মকর্তার মতে, তাদের আলোচনায় তালিবান দখলের আঞ্চলিক প্রতিক্রিয়া অন্তর্ভুক্ত ছিল এবং চীনের বিষয়টি আলোচনার কেন্দ্রে ছিল।

ফরাসি সংবাদ সংস্থার মতে, চীন তালিবানের অন্তর্বর্তীকালীন মন্ত্রিসভা ঘোষণাকে স্বাগত জানিয়েছে এবং এটিকে "শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনার প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ" বলে অভিহিত করেছে।

XS
SM
MD
LG