অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

আফগানিস্তানে আল-কায়দার 'সম্ভাব্য গতিবিধি' চিহ্নিত করেছে যুক্তরাষ্ট্র


ফাইল ফটোঃ ১৮ই ডিসেম্বর ২০০১, আফগানিস্তানের তোরা বোরার কাছে হোয়াইট পর্বতমালায় টহলরত এক সৈন্য এপি

গত মাসের শেষের দিকে তালিবান নিয়ন্ত্রণ দখল করে নেওয়ার ফলে আল-কায়দা এবং ইসলামিক স্টেট সন্ত্রাসী গোষ্ঠী উভয়ের সমর্থকরা আফগানিস্তানের দিকে নজর রেখেছে বলে ক্রমাগত ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছে।

গত প্রায় এক সপ্তাহ ধরে প্রাথমিক রিপোর্টগুলোতে দেখা যাচ্ছে যে সন্ত্রাসীদের মধ্যে কথোপকথন বেড়েছে, তারা আফগানিস্তানে যাওয়ার প্রবল ইচ্ছাওপ্রকাশ করেছে।তবে যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষ এক গোয়েন্দা কর্মকর্তা মঙ্গলবার বলেছেন যে ইতিমধ্যে কেউ কেউ সেখানে যেতে শুরু করেছে।

ওয়াশিংটনের বাইরে এক গোয়েন্দা শীর্ষ সম্মেলনে প্যানেল আলোচনায় কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থার উপপরিচালক ডেভিড কোহেন বলেন, "আমরা ইতিমধ্যে আফগানিস্তানের ব্যাপারে আল-কায়দার সম্ভাব্য কিছু গতিবিধির ইঙ্গিত দেখতে পাচ্ছি।"

তিনি সতর্ক করে দিয়ে বলেন যে আল-কায়দা এক বছরেরও কম সময়ের মধ্যে পুনরায় সংগঠিত হতে পারে। "আমরা স্পষ্টতই এটির উপর খুব তীক্ষ্ণ নজর রাখব।"

যুক্তরাষ্ট্রের গোয়েন্দা কর্মকর্তারা আফগানিস্তানমুখী আল-কায়দা সদস্যদের পরিচয় বা তারা কোথা থেকে আসছে সে সম্পর্কে নির্দিষ্ট কিছু জানাতে অস্বীকৃতি জানিয়েছেন। যদিও সম্প্রতি অনলাইনে পোস্ট করা একটি ভিডিওতে আমিন আল-হককে দেখা গেছে যে তিনি তার জন্মস্থান নাঙ্গারহার প্রদেশে ফিরছেন। তিনি তোরা বোরার যুদ্ধের সময় আল-কায়দার প্রতিষ্ঠাতা ওসামা বিন লাদেনের সাথে কাজ করেছিলেন।

XS
SM
MD
LG