অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

আফগানিস্তানে সংশ্লিষ্ট সকল পক্ষের যুদ্ধাপরাধের তদন্ত দাবি করেছে অ্যামনেস্টি


আফগানিস্তানের কাবুলে তালিবান যোদ্ধারা টহল দিচ্ছে. ১৯শে আগস্ট ২০২১, ছবি এপি

একটি বৈশ্বিক মানবাধিকার গোষ্ঠী আফগানিস্তানের সংঘাতের সকল পক্ষকে যুক্তরাষ্ট্র সমর্থিত সরকার পতনের আগে এবং ইসলামপন্থী তালিবান গত আগস্টে ক্ষমতায় আসার আগে কাবুলে বেসামরিক লোকদের হতাহতের জন্য অভিযুক্ত করছে।

লন্ডন ভিত্তিক অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল বুধবার একটি নতুন প্রতিবেদনে বলেছে যে কাবুলের পতনের ঠিক আগের মাসগুলিতে তালিবান, আফগান নিরাপত্তা বাহিনী এবং যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক বাহিনী "বারবার যুদ্ধাপরাধ এবং নির্মম রক্তপাত" এর জন্য দায়ী ছিল।

অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের সেক্রেটারি জেনারেল অ্যাগনেস ক্যালামার্ড বলেছেন, "আমাদের নতুন প্রমাণে দেখা যাচ্ছে যে যে, তালিবান যে দাবি করছে ক্ষমতা হস্তান্তরের নিরবচ্ছিন্নতা, বাস্তব পরিস্থিতি তা থেকে অনেক দূরে, আফগানিস্তানের জনগণ আবারও তাদের জীবন দিয়ে মূল্য পরিশোধ করেছে।"

তিনি বলেন, "বাড়ি, হাসপাতাল, স্কুল এবং দোকানপাট অপরাধের দৃশ্যে পরিণত হয়েছে কারণ মানুষ বারবার নিহত এবং আহত হচ্ছিল। আফগানিস্তানের জনগণ দীর্ঘকাল ধরে ভুগছে, এবং ক্ষতিগ্রস্তদের অবশ্যই ন্যায়বিচার পেতে হবে এবং ক্ষতিপূরণ পেতে হবে,”।

অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল তার প্রতিবেদনে উল্লেখ করেছে যে জুলাই এবং আগস্টে আফগানিস্তান জুড়ে তাদের সামরিক অগ্রাভিযানের সময়, তালিবান যোদ্ধারা জাতিগত ও ধর্মীয় সংখ্যালঘুদের, ক্ষমতাচ্যুত সরকারের প্রতি অনুগত সৈন্যদের এবং প্রাক্তন সরকারের সহানুভূতিশীল হিসাবে বিবেচিত লোকজনকে প্রতিশোধমূলক আক্রমণে নির্যাতন ও হত্যা করেছে।"

XS
SM
MD
LG