অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

হর্ন অফ আফ্রিকার জন্য বিশেষ দূত নিযুক্ত করবে চীন


চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই এবং তার কেনিয়ার প্রতিপক্ষ, রেচেল ওমামো, ৬ই জানুয়ারী। ২০২২,ছবি-রয়টার্স

চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই ঘোষণা করেছেন যে বেইজিং শিগগিরই হর্ন অফ আফ্রিকার বা আফ্রিকা শৃঙ্গের জন্য একজন বিশেষ দূত নিয়োগ করবে। বৃহস্পতিবার কেনিয়া সফরের সময় ওয়াংয়ের এই ঘোষণাটি এসেছে যখন হর্নের যুক্তরাষ্ট্রের দূত ইথিওপিয়ায় যাচ্ছেন, ইথিওপিয়া এক বছরেরও বেশি সময় ধরে এই যুদ্ধ নিয়ে হিমসিম খাচ্ছে । এই অঞ্চলটি সুদানের অভ্যুত্থান এবং সোমালিয়ায় নির্বাচনী স্থবিরতার কারণেও বিপর্যয়ের সম্মুখীন হয়েছে।

সফররত চীনা শীর্ষ কূটনীতিক বলেছেন, তার দেশ হর্ন অফ আফ্রিকায় শান্তি প্রক্রিয়ার নেতৃত্ব দেওয়ার জন্য একজন বিশেষ দূত নিয়োগ করবে।

কেনিয়ার উপকূলীয় শহর মোম্বাসায় বক্তৃতায় ওয়াং বলেন, শান্তির সন্ধানে তার দেশ হর্ন অফ আফ্রিকার জনগণকে সমর্থন করবে।

তিনি বলেন, সম-মর্যাদায় আলোচনা করা এবং এই অঞ্চলের ভাগ্য নিজের জনগণের হাতে দৃঢ়ভাবে তুলে দেওয়া গুরুত্বপূর্ণ। তিনি পরামর্শ দেন যে এই অঞ্চলের দেশগুলি হর্ন অফ আফ্রিকার শান্তির বিষয়ে একটি সম্মেলন আহ্বান করতে পারে। তিনি আরও বলেন যে এই বিষয়ে গভীরভাবে আলোচনা করার জন্য, রাজনৈতিক ঐকমত্য ভাগ করে নেওয়ার জন্য এবং কর্মের সমন্বয় সাধনের জন্য, চীন এই প্রক্রিয়াটির জন্য প্রয়োজনীয় সহায়তা প্রদানের উদ্দেশ্যে একটি বিশেষ দূত নিয়োগ করবে।

চীন থেকে বিশেষ দূত নিয়োগের পরিকল্পনাকে যুদ্ধ-বিধ্বস্ত ওই অঞ্চলে রাজনীতি ও নিরাপত্তায় ভূমিকা রাখার উদ্দেশ্যে চীনের উচ্চাভিলাষী মনোভাব হিসেবে দেখা হচ্ছে।

ড্রোন সহ ইথিওপিয়ান সরকারকে সামরিক হার্ডওয়্যার সরবরাহ করার জন্য সন্দেহ করা দেশগুলির মধ্যে চীন অন্যতম।

কেনিয়ার টেকনিক্যাল ইউনিভার্সিটির আন্তর্জাতিক সম্পর্কের প্রভাষক নাসোং’ও মুলিরো বলেছেন, চীন অর্থনৈতিক বিষয় থেকে সামরিক বিষয়ে মোড় নিচ্ছে।

মুলিরো বলেন, “বিশেষ প্রতিনিধিরা কেবল বাণিজ্যের জন্য নয়, তারা অনেক শান্তি ও নিরাপত্তা বিষয়ক কাজ করে থাকেন। কিন্তু চীন যদি একবার তার সামরিক শক্তি প্রসারিত করে এবং ঘাঁটি স্থাপন করে, তাহলে আমরা প্রক্সি যুদ্ধে যেতে পারি,”।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষা বিভাগ, চীনের সামরিক কার্যকলাপের বিষয়ে কংগ্রেসে তার বার্ষিক প্রতিবেদনে বলেছে, বেইজিং কেনিয়া এবং তানজানিয়ায় সামরিক ঘাঁটি স্থাপন করতে চায়, তবে চীন এ দাবি অস্বীকার করেছে।

XS
SM
MD
LG