অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

টিগ্রায়তে সংঘাত বন্ধে ইথিওপিয়ার আবি আহমেদের “বিশেষ দায়িত্ব” আছে: নোবেল কমিটি


ইথিওপিয়ার প্রধানমন্ত্রী আবি আহমেদ

নোবেল শান্তি পুরস্কার প্রদানকারী, নরওয়ের নোবেল কমিটি বৃহস্পতিবার বলে যে, টিগ্রায়তে রক্তপাত অবসানের ব্যাপারে ২০১৯ সালে পুরস্কারটির বিজয়ী, ইথিওপিয়ার প্রধানমন্ত্রী আবি আহমেদের বিশেষ দায়িত্ব রয়েছে।

কমিটির প্রধান বেরিট রিস-অ্যান্ডারসন, এক বিবৃতিতে এএফপিকে বলেন, “প্রধানমন্ত্রী এবং নোবেল শান্তি পুরস্কার বিজয়ী হিসেবে, আবি আহমেদের এই সংঘাত বন্ধে এবং শান্তিতে অবদান রাখার বিশেষ দায়িত্ব রয়েছে”।

২০২০ সালের নভেম্বর থেকে ইথোপিয়ার উত্তরাঞ্চল সংঘাতে জর্জরিত হয়ে আছে। সে সময় আবি, টিগ্রায়তে ক্ষমতাসীন দল, টিগ্রায় পিপল’স লিবারেশন ফ্রন্ট (টিপিএলএফ) কর্তৃক ফেডারেল সেনাবাহিনীর শিবিরে আক্রমণের অভিযোগে, ঐ অঞ্চলে সৈন্য প্রেরণ করেন।

আবির প্রতি অনুগত বাহিনী এবং টিপিএলএফ ও তাদের মিত্রদের মধ্যকার সংঘাতে, হাজার হাজার মানুষ নিহত এবং লক্ষ লক্ষ মানুষ বাস্তুচ্যুত হয়েছেন।

একটি সংবাদ সম্মেলনে কথা বলার সময়, হিউম্যান রাইটস ওয়াচ এর নির্বাহী পরিচালক কেনেথ রথ, অন্যান্য দেশের প্রতি আবির উপর চাপ প্রয়োগের আহ্বান জানান, যাতে তিনি সেখানে সহায়তা সামগ্রী পৌঁছানোর অনুমতি দেন।

টিগ্রায়তে সংঘাতের কারণে আবির নোবেল পুরস্কারটি প্রত্যাহার করে নেওয়ার আহ্বান এসেছে, তবে পুরস্কারটির বিধান অনুযায়ী এমনটি করা সম্ভব নয়।

নরওয়ের কমিটি জানায় যে, আবিকে পুরস্কারটি দেওয়ার সময় কোন বিষয়গুলিতে জোর দেওয়া হয়েছিল, সে বিষয়ে তারা কোন মন্তব্য করতে পারবেন না। প্যানেলের আলোচনাটি গোপন হওয়াতে তারা কারণ হিসেবে শুধুমাত্র “পুরস্কারটির সাথে প্রদত্ত কারণগুলোই” উল্লেখ করতে পারেন।

রিস-অ্যান্ডারসন বলেন, আবির পুরস্কারটি “২০১৯ সালে বিদ্যমান তার প্রচেষ্টা এবং ন্যায়সঙ্গত প্রত্যাশার উপর ভিত্তি করে দেওয়া হয়েছিল”।

XS
SM
MD
LG