অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

লালমনিরহাটের কালীগঞ্জে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ–গ্রেপ্তার ২


ধর্ষণ সংক্রান্ত যে কোনো ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের শাস্তির দাবীতে আন্দোলনরত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মধ্যে একজন প্ল্যাকার্ড ধরে আছেন। জানুয়ারি ২০, ২০২০। (ফাইল ছবি- মুনির উজ জামান/ এএফপি)

লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ উপজেলায় সপ্তম শ্রেণির এক ছাত্রীকে (১৪) বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে ধর্ষণের অভিযোগে দুজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এ ঘটনার পর সোমবার রাতেই তাদের ওই এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়।

মঙ্গলবার (২৫ জানুয়ারি) দুপুরে নির্যাতিত ছাত্রীর মা বাদী হয়ে কালীগঞ্জ থানায় দুই জনকে আসামি করে একটি মামলা করেন।

আটক ব্যক্তিরা হলেন, কালীগঞ্জ উপজেলার চন্দ্রপুর ইউনিয়নের হররাম গ্রামের আঞ্জু মিয়ার ছেলে রিপন মিয়া (২৮) এবং একই এলাকার আহম্মদ আলীর ছেলে মনির উদ্দিন (১৮)।

এজাহার সূত্রে জানা গেছে, রিপন মিয়া ও মনির উদ্দিন তাদের প্রতিবেশী সপ্তম শ্রেণির এক শিক্ষার্থীকে কৌশলে রবিবার (২৩ জানুয়ারি) রাত সাড়ে ৮টার দিকে নিজ বাড়ি থেকে উঠিয়ে ওই এলাকার পরিত্যক্ত একটি বাসায় নিয়ে যায়।

সেখানে ওই ছাত্রীকে তারা সারারাত আটক রেখে ধর্ষণ করে। এতে ওই ছাত্রী অসুস্থ হয়ে পড়লে পরদিন সোমবার (২৪ জানুয়ারি) সকালে পাশের সতী নদীর ধারে তাকে ফেলে পালিয়ে যায়।

পরবর্তীতে স্থানীয়রা অসুস্থ অবস্থায় ওই ছাত্রীকে উদ্ধার করে প্রথমে কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে লালমনিরহাট সদর হাসপাতালে ভর্তি করে।

স্থানীয়দের মাধ্যমে খবর পেয়ে কালীগঞ্জ থানা পুলিশ সোমবার রাতেই অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত রিপন মিয়া ও মনির উদ্দিনকে আটক করে। এ ঘটনায় মঙ্গলবার (২৫ জানুয়ারি) দুপুরে নির্যাতিত স্কুলছাত্রীর মা বাদী হয়ে কালীগঞ্জ থানায় একটি ধর্ষণ মামলা করেন। এ মামলায় আটকদের গ্রেপ্তার দেখিয়েছে পুলিশ।

কালীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গোলাম রসুল বলেন, “স্থানীয়দের মাধ্যমে খবর পেয়ে তাৎক্ষণিক অভিযান চালিয়ে অভিযুক্তদের আটক করা হয়। পরে এ ঘটনায় মামলা করে তাদেরকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে।”

XS
SM
MD
LG