অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

পশ্চিমা দেশগুলি ইউরোপীয় নিরাপত্তা নিয়ে রাশিয়ার সাথে 'গুরুতর সংলাপ’-এর জন্য প্রস্তুত': শোলজ


কিয়েভের মারিনস্কি প্রাসাদে করমর্দন করছেন ভলোদিমির জেলেনস্কি (ডানদিকে) এবং ওলাফ শোলজ। ১৪ ফেব্রুয়ারী, ২০২২।

জার্মান চ্যান্সেলর ওলাফ শোলজ সোমবার বলেছেন, পশ্চিমা দেশগুলি "ইউরোপীয় নিরাপত্তা ইস্যুতে রাশিয়ার সাথে একটি গুরুতর সংলাপের জন্য প্রস্তুত" তবে এটাও দেখতে চান যে ইউক্রেনে আসন্ন আক্রমণের হুমকি কমিয়ে আনতে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন কতখানি কি করতে পারেন।

কিয়েভে ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেন্সকি সাথে সাক্ষাতের পর, শোলজ ক্রেমলিনকে এই নতুন ধরনের প্রস্তাবটি দিয়েছেন। এদিকে, যুক্তরাষ্ট্র এবং তার মিত্ররা সতর্ক করেছে যে পুতিন কয়েক দিনের মধ্যে ইউক্রেনের উপর ক্ষেপণাস্ত্র, আকাশ বোমা এবং স্থলভাগে হামলাসহ দ্রুত ব্যাপক আক্রমণ শুরু করতে পারে।

তবে শোলসের মন্তব্যের বিষয়ে রাশিয়া থেকে তাৎক্ষণিক কোনো মন্তব্য পাওয়া যায়নি। এর আগে, যদিও রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভ পুতিনকে পরামর্শ দিয়েছিলেন যে, তিনি যুক্তরাষ্ট্র এবং নেটো দেশগুলির সাথে আলোচনা চালিয়ে যেতে চান। যদিও পশ্চিমারা নেটো সামরিক জোটে ইউক্রেনের সম্ভাব্য সদস্যপদ বাতিল করার জন্য পুতিনের প্রধান দাবি প্রত্যাখ্যান করেছে।

আলোচনার লম্বা এক টেবিলে অনেক দূরে বসে ল্যাভরভ রাশিয়ান নেতাকে বলেছিলেন, যদিও যুক্তরাষ্ট্র এবং নেটো ইউক্রেনে অস্ত্রের চালান বন্ধ করতে বা পূর্ব ইউরোপ থেকে তাদের বাহিনী ফিরিয়ে নিতে অস্বীকার করেছে, তবে তারা ইউরোপে ক্ষেপণাস্ত্র এবং রাশিয়ার নিকটতম নেটো দেশগুলিতে সামরিক বাহিনী মোতায়েনের বিষয়ে আলোচনার প্রস্তাব দিয়েছে।

পশ্চিমা নেতৃবৃন্দের সাথে কূটনৈতিক তৎপরতা চালিয়ে যাওয়ার ব্যাপারে পুতিনের মতামত কী, জানতে চাইলে, ল্যাভরভ উত্তর দেন, আলোচনা শেষ হতে এখনও অনেক সময় বাকি " তবে তিনি আলোচনা চালিয়ে যাওয়ার প্রস্তাব করেন।

লাভরভ বলেন, আলোচনা "অনির্দিষ্টকালের জন্য চলতে পারে না, তবে আমি এই পর্যায়ে তাদের আলোচনা চালিয়ে যাওয়ার এবং আরও প্রসারিত করার পরামর্শ দেব।"

কিয়েভে, শোলজ জার্মানি থেকে ইউক্রেনে ১৭ কোটি ডলার নতুন ঋণের ঘোষণা দিয়েছেন , কিন্তু একথাও পুনর্ব্যক্ত করেন যে, রাশিয়া ইউক্রেন আক্রমণ করলে পশ্চিম তার বিরুদ্ধে "খুব সুদূরপ্রসারী এবং কার্যকর (অর্থনৈতিক) নিষেধাজ্ঞা" আরোপ করতে প্রস্তুত।

রাশিয়া তার মিত্র বেলারুশ থেকে উত্তরে, রাশিয়ার ভূখণ্ড থেকে পূর্বে এবং দক্ষিণে ক্রাইমিয়ান উপদ্বীপের পাশাপাশি কৃষ্ণ সাগরে টহলরত যুদ্ধজাহাজ মোতায়েনসহ ভারী অস্ত্রে সজ্জিত ১,৩০,০০০ সৈন্য নিয়ে ইউক্রেনকে তিন দিক থেকে ঘিরে রেখেছে।

যুক্তরাষ্ট্র বলেছে, তাদের গোয়েন্দারা বলছে যে রাশিয়া যেকোনো মুহূর্তে ইউক্রেন আক্রমণ করতে পারে এবং সেখানে বসবাসকারী আমেরিকানদের অবিলম্বে দেশ ছেড়ে চলে যাওয়ার আহ্বান জানিয়েছে। আসন্ন যুদ্ধের ভয়ে কিছু বাণিজ্যিক এয়ারলাইন্স ইউক্রেনে তাদের ফ্লাইট বন্ধ করে দিয়েছে।

ইউক্রেনের সার্বভৌমত্ব এবং আঞ্চলিক অখণ্ডতার প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিশ্রুতি সম্পর্কে রবিবার একটি ফোন কলে জেলেন্সকিকে আশ্বস্ত করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন।

[ এই প্রতিবেদনের কিছু তথ্য এপি এবং রয়টার্স থেকে নেয়া ]।

XS
SM
MD
LG