অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

রাশিয়ার ইউক্রেন আক্রমণের কথা চীন কি জানত?


২০২২ সালের ৩ মার্চ বেইজিংয়ে বার্ষিক সংসদীয় বৈঠকের আগে চীনের আধাসামরিক পুলিশ সদস্যরা গ্রেট হল অব দ্য পিপলের কাছে তিয়েনানম্যান এলাকায় পাহারারত এপি

রাশিয়ার কর্মকর্তাদের বেইজিং শীতকালীন অলিম্পিকের পর পর্যন্ত ইউক্রেন আক্রমণ বিলম্ব করতে বলেছেন বলে যে একটি রিপোর্টে বলা হয়েছে চীনের কর্মকর্তারা তা প্রত্যাখ্যান করেছেন। বিশেষজ্ঞরা বলছেন যে পরিস্থিতি এই ইঙ্গিতই দেয় যে চীনা নেতারা জানতেন যে একটি আক্রমণ হতে যাচ্ছে এবং তা প্রকাশিত হলে পাশ্চাত্যে র কাছে চীনের সুনামকে কলঙ্কিত করবে।

চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ওয়াং ওয়েনবিন ৩রা মার্চ নিউ ইয়র্ক টাইমসে প্রকাশিত প্রতিবেদনটিকে 'সম্পূর্ণ ভুয়া খবর' বলে অভিহিত করেছেন। পশ্চিমা গোয়েন্দা প্রতিবেদনের উল্লেখ করে পত্রিকাটি বলেছে, চীনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ফেব্রুয়ারির শুরুতে রাশিয়ার ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের ফেব্রুয়ারির শেষ নাগাদ গেমস শেষ না হওয়া পর্যন্ত ইউক্রেন আক্রমণ না করার কথা বলেছিলেন। যুদ্ধ শুরু হয়েছে এক সপ্তাহ আগে।

বৃহস্পতিবার ওয়াং এক নিয়মিত সংবাদ সম্মেলনে বলেন "মনোযোগ ঘুরিয়ে দেয়া এবং দোষ অন্যের কাঁধে দেয়ার এই ধরনের অনুশীলন ঘৃণ্য।

“ইউক্রেন নিয়ে যে ঘটনা ঘটছে তার সবটুকুই খুব স্পষ্ট। তিনি বলেন, বিষয়টির মূল কারণ সবারই জানা।”

ওয়াশিংটনে চীনের দূতাবাসের মুখপাত্র লিউ পেংইউ বলেন, “এই প্রতিবেদনে যা দাবি করা হয়েছে তা শুধুই অনুমান, এর কোনো ভিত্তি নেই। এর উদ্দেশ্য চীনকে দোষারোপ এবং কলঙ্কিত করা।”

ওয়াশিংটনের স্টিমসন সেন্টারের চীনা কর্মসূচির পরিচালক ইউন সান বলেন, দেশের নেতারা খুব কমই আসন্ন যুদ্ধ সম্পর্কে একে অপরকে আগে থেকে বলে থাকেন। তাই রাশিয়া এবং চীনের মধ্যে তথ্য বিনিময় একটি বিশেষ সম্পর্কের দিকেই ইঙ্গিত করবে।

সান বলেন, “এটা গুরুত্বপূর্ণ কারণ এ থেকে চীন-রাশিয়া সম্পর্কের প্রকৃতি এবং গভীরতা বোঝা যায়।” তিনি বলেন, চীন যদি রুশ আগ্রাসনের সঙ্গে যুক্ত হয়, তাহলে তার সহযোগী হবে চীন। আমরা চীনের কাছ থেকে এটা আশা করতে পারি না যে চীন গঠনমূলক উপায়ে তাদের প্রতিক্রিয়া জানাবে।

যুক্তরাষ্ট্র রুশ আগ্রাসনের কঠোর সমালোচনা করেছে। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র জালিনা পোর্টার বৃহস্পতিবার বলেছেন মস্কোর সমর্থকরা “ইতিহাসের ভুল দিকে” থাকবে এবং “বিশ্ব লক্ষ্য রাখছে কোন দেশগুলি ইউক্রেনের পক্ষে রয়েছে।”

ট্রান্স-আটলান্টিক সহযোগিতা অ্যাডভোকেসি গ্রুপ জার্মান মার্শাল ফান্ডের সিনিয়র ফেলো অ্যান্ড্রু স্মল বলেন, চীন রাশিয়ার সম্পর্কের ক্ষেত্রে “অত্যন্ত উচ্চ অগ্রাধিকার” দিয়ে থাকে। ঐ দুটি দেশ ঠাণ্ডা লড়াইয়ের সময় ওয়াশিংটনের প্রতিদ্বন্দ্বি ছিল এবং সাম্প্রতিক বছরগুলোতে তারা পশ্চিমাদের বিরুদ্ধে নিজেদেরকে পুনরায় একত্রিত করেছে।

স্মল বলেন, চীন সম্ভবত আশা করেছিল যে রাশিয়া ইউক্রেনে দ্রুত জয়লাভ করবে। যেমনটি অতীতের যুদ্ধগুলতে তারা করেছে।

হাওয়াইয়ের ড্যানিয়েল কে. ইনুইয়ে এশিয়া-প্যাসিফিক সেন্টার ফর সিকিউরিটি স্টাডিজের অধ্যাপক আলেকজান্ডার ভুভিং বলেন, অলিম্পিকের আগে সম্ভবত রাশিয়ার ইউক্রেন আক্রমণের একটি ধারণা চীনের ছিল এবং অলিম্পিক গেইমস’এবিভ্রান্তি যেন না ঘটে সে জন্য রাশিয়ার প্রেসিডন্ট ভ্লাদিমির পুতিনকে হামলা বিলম্বিত করার আহ্বান জানানো হয়েছিল।

ভুভিং আরও বলেন ইউক্রেন আক্রমণ করা হবে কি হবে না সে সম্পর্কে পুতিনের সামগ্রিক সিদ্ধান্তকে বেইজিংয়ের নেতারা সহজেই প্রভাবিত করতে পারতেন না।

XS
SM
MD
LG