অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ইউক্রেনে ‘সম্ভাব্য’ যুদ্ধাপরাধের বিষয়ে রাশিয়াকে সতর্ক করল যুক্তরাষ্ট্র


ইউক্রেনের রাষ্ট্রীয় জরুরী পরিষেবা প্রকাশিত এই ছবিটিতে দেখা যাচ্ছে ডিনিপ্রোতে একটি বিমান হামলার ঘটনাস্থলে উদ্ধারকারীরা কাজ করছেন৷ ১১ মার্চ, ২০২২, ছবি-এএফপি

ওয়াশিংটন বৃহস্পতিবার মস্কোকে এমন বিষয়ে সতর্ক করেছে, যেটিকে কোন কোন পর্যবেক্ষক ইউক্রেনে রাশিয়া কর্তৃক সংঘটিত যুদ্ধাপরাধ হিসেবে বর্ণনা করেছেন। যুক্তরাষ্ট্রের কর্মকর্তারা বলছেন যে, রাশিয়া ইউক্রেনে “জনবসতিপূর্ণ স্থানগুলোতে ধ্বংসযজ্ঞ চালানোর কৌশল অবলম্বনের পথে হাঁটছে”। অপরদিকে, যুদ্ধরত দুই পক্ষের মধ্যে উচ্চ পর্যায়ের আলোচনায় কোন অগ্রগতি হয়নি।

পররাষ্ট্র মন্ত্রকের মুখপাত্র নেড প্রাইস বলেন, “বেসামরিক মানুষের উপর ইচ্ছাকৃত হামলার খুবই বিশ্বাসযোগ্য প্রতিবেদন আমরা দেখেছি, যে হামলাগুলো জেনেভা কনভেনশন অনুযায়ী যুদ্ধাপরাধের শামিল”। তবে, তিনি রাশিয়ার বিরুদ্ধে সরাসরি এমন অপরাধ সংঘটনের অভিযোগ করেননি।

দুই সপ্তাহ ধরে চলমান এই আক্রমণের বিষয়ে প্রাইস বলেন যে, “এখন পরিষ্কারভাবেই বোঝা যাচ্ছে যে ইউক্রেন দখলের (রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির) পুতিনের পরিকল্পনাটি ব্যর্থ হয়েছে”। তিনি আরও বলেন, “তাই, এখন তিনি জনবসতির স্থানগুলোতে ধ্বংসযজ্ঞ চালানোর কৌশল নিচ্ছেন যাতে করে ইউক্রেনের মানুষের মনোবল ভেঙে দেওয়া যায়, তবে তা করতে তিনি সফল হবেন না”।

ইউক্রেনের উপর আক্রমণটিতে বেসামরিক মানুষকে লক্ষ্য করে হামলার অভিযোগ রাশিয়া অস্বীকার করেছে।

ভাইস প্রেসিডেন্ট কামালা হ্যারিস পোল্যান্ডে বলেন যে, তিনি ইউক্রেনে রাশিয়ার হামলাটির বিষয়ে জাতিসংঘের তদন্ত সমর্থন করেন। তদন্তটি “সকল অধিকার লঙ্ঘন এবং অত্যাচার, এবং সংশ্লিষ্ট অপরাধগুলো” খতিয়ে দেখবে।

ওয়ারস’-তে পোল্যান্ডের প্রেসিডেন্ট আন্দ্রেজ দুদা’র সাথে বৈঠকের আগে হ্যারিস কথাগুলো বলেন। পূর্ব ইউরোপে নেটো মিত্রদের প্রতি সমর্থন প্রদর্শন করতে এই সফরটি করছেন কামালা হ্যারিস।

হ্যারিস বলেন, “অবশ্যই, একটি তদন্ত হওয়া উচিৎ, এবং আমরা সেটি পর্যবেক্ষণ করব”।

দুদা বলেন, “এটা আমাদের কাছে পরিষ্কার যে, রাশিয়া ইউক্রেনে যুদ্ধাপরাধ করছে”।

XS
SM
MD
LG