অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

বাংলাদেশে প্রাকৃতিক গ্যাসের দাম বাড়ানোর প্রস্তাবের বিষয়ে সিদ্ধান্ত রবিবার


বাংলাদেশে প্রাকৃতিক গ্যাসের দাম বাড়ানোর প্রস্তাবের বিষয়ে সিদ্ধান্ত রবিবার

রবিবার (৫ জুন) প্রাকৃতিক গ্যাসের দাম বাড়ানোর প্রস্তাবের বিষয়ে সিদ্ধান্ত জানাবে, বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন (বিইআরসি)।বিকাল ৩টায়, বিইআরসি চেয়ারম্যান আবদুল জলিল এক ভার্চুয়াল ব্রিফিংয়ে এই সিদ্ধান্ত ঘোষণা করবেন।

গত ২৫ জানুয়ারি বিইআরসির কাছে, রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন পেট্রোবাংলা ও ছয়টি গ্যাস বিতরণ কোম্পানি, খুচরা পর্যায়ে গ্যাসের দাম ১১৭ শতাংশ বৃদ্ধির চূড়ান্ত প্রস্তাব জমা দেয়।

এছাড়া, প্রধান গ্যাস সরবরাহকারী পেট্রোবাংলা, বাল্ক বা পাইকারি পর্যায়েও প্রাকৃতিক গ্যাসের দাম বাড়ানোর প্রস্তাব দিয়েছে।

গত ২১-২৩ মার্চ, বিইআরসি, রাজধানীর বিয়াম মিলনায়তনে ৪ দিনের গণশুনানির আয়োজন করে। সেখানে পেট্রোবাংলার খুচরা গ্যাসের দাম বাড়ানোর প্রস্তাব, গ্রাহক, নাগরিক, ব্যবসায়ী এবং পেশাজীবীদের কঠোর বিরোধিতার মুখে পড়ে।

বর্তমান পরিস্থিতিতে, গৃহকর্মের গ্রাহকদের জন্য আবার গ্যাসের দাম বাড়ানো হলে, তা জনসাধারণের ওপর চাপ বাড়বে বলে মনে করছে জ্বালানি বিশেষজ্ঞ ও ভোক্তা অধিকার সংগঠনগুলো।

পেট্রোবাংলার কর্মকর্তারা দাবি করেছেন, এলএনজি (তরলীকৃত প্রাকৃতিক গ্যাস) আমদানি এবং অন্যান্য ব্যয় বৃদ্ধির কারণে সংস্থার বার্ষিক ব্যয় বেড়ে দাঁড়াবে ৬৫ হাজার ২২৫ দশমিক ৭৫ কোটি টাকা।

ফলে, গড়ে প্রতি ঘনমিটার গ্যাসের দাম বর্তমান ১২ দশমিক ৬০ টাকা থেকে বাড়িয়ে, ২০ টাকা করার দাবি তাদের।

বিইআরসির কারিগরি দল, পেট্রোবাংলার দাবির সঙ্গে দ্বিমত পোষণ করে, তাদের প্রতিবেদনে বলেছে, রাষ্ট্র পরিচালিত সংস্থাটির ব্যয় মেটানোর পরেও, উদ্বৃত্ত হিসেবে প্রায় আড়াই হাজার কোটি টাকার অব্যবহৃত তহবিল রয়েছে।

XS
SM
MD
LG