অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

মারিউপোলের বীভৎসতার ভিডিও ধারণকারী চিকিৎসককে মুক্তি দিল রাশিয়া


৯ মার্চ ২০২২ তারিখে ইউক্রেনের মারিউপোলে এক গাড়িতে বসে আছেন টাইরা নামে পরিচিত ইয়ুলিয়া পাইয়েভস্কা এবং তার গাড়িচালক সের্হি। মারিউপোলের রাস্তায় বন্দি হওয়ার তিনমাস পর, ১৭ জুন ২০২২ তারিখে রুশ বাহিনী তাকে মুক্তি দেয়। (ফাইল ফটো)

ইউক্রেনের এক সুপরিচিত চিকিৎসক, যার ধারণ করা ভিডিও ফুটেজ অবরুদ্ধ মারিউপোল শহর থেকে অ্যাসোসিয়েটেড প্রেসের একটি দল পাচার করে বের করে এনেছিল, সেই চিকিৎসককে শুক্রবার রুশ বাহিনী মুক্তি দেয়। মারিউপোল শহরের রাস্তা থেকে তিনমাস আগে তাকে ধরে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল।

ইয়ুলিয়া পাইয়েভস্কা ইউক্রেনে টাইরা নামে পরিচিত। “ওয়ার্ল্ড অফ ওয়ারক্র্যাফট” ভিডিও গেমটিতে এই নামটি ব্যবহার করেই তিনি খেলতেন। দুই সপ্তাহেরও বেশি সময় ধরে আহতদের বাঁচানোর জন্য করা তার দলের প্রচেষ্টাগুলো তিনি রেকর্ড করেন। তাতে মোট ২৫৬ গিগাবাইটেরও বেশি ভিডিও ধারণ করা হয়। তারা রুশ ও ইউক্রেনীয়, উভয় দলের সৈন্যদেরই সাহায্য করেন।

তিনি তার ভিডিও ক্লিপগুলো অ্যাসোসিয়েটেড প্রেসের একটি দলের কাছে হস্তান্তর করেন। তারাই ছিল মারিউপোলে অবস্থিত শেষ আন্তর্জাতিক সংবাদকর্মী। তাদের মধ্যে একজন ১৫ মার্চ তারিখে ফুটেজগুলো একটি ট্যামপন-এ লুকিয়ে নিয়ে সেখান থেকে পালান। ১৬ মার্চ তারিখে টাইরা ও তার এক সহকর্মীকে রুশ বাহিনী বন্দি করে। ঐ একই দিনেই শহরের কেন্দ্রে অবস্থিত এক থিয়েটারে রুশ বিমানহামলায় প্রায় ৬০০ মানুষ নিহত হন বলে, অ্যাসোসিয়েটেড প্রেসের এক অনুসন্ধানের তথ্য থেকে জানা যায়।

শুরুতে তার পরিবার চুপ ছিল এই আশায় যে আলোচনা নিজ গতিপথে চলবে। কিন্তু পাচার করা ভিডিওগুলো প্রকাশের আগে, দ্য অ্যাসোসিয়েটেড প্রেস টাইরার স্বামী ভাদিম পুজানভ এর সাথে কথা বলে। পরে ঐ ভিডিওগুলো বিশ্বব্যাপী লক্ষ লক্ষ দর্শক দেখেন। ইউরোপ ও যুক্তরাষ্ট্রের সবচেয়ে বড় কয়েকটি সম্প্রচারকও ভিডিওগুলো প্রদর্শন করে। এই প্রচারের জন্য পুজানভ কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। ভিডিওগুলোতে দেখা যায় টাইরা ইউক্রেনীয় সৈন্যদের পাশাপাশি রুশ সৈন্যদেরও বাঁচানোর চেষ্টা করছেন।

জাতির উদ্দেশ্যে দেওয়া এক ভাষণে ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেন্সকি টাইরার মুক্তির খবর ঘোষণা করেন।


XS
SM
MD
LG