অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

পাকিস্তানের ক্ষমতাচ্যুত প্রধানমন্ত্রীর দল গুরুত্বপূর্ণ উপনির্বাচনে জয়ী


পাকিস্তানের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান (মাঝে) ইসলামাবাদে একটি সমাবেশে বক্তৃতা করছেন। ২৬ মে, ২০২২।

রবিবার পাকিস্তানের ক্ষমতাচ্যুত প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের বিরোধী দল দেশের সবচেয়ে জনবহুল পাঞ্জাব প্রদেশের উপনির্বাচনে জয়লাভ করছে। এই জয় কেন্দ্রীয় জোট সরকারকে একটি গুরুতর ধাক্কা দিয়েছে এবং সম্ভবত দ্রুত নির্বাচনের পথ প্রশস্ত করদেশ

এ নির্বাচনের ফলাফল পিটিআইকে প্রাদেশিক আইনসভায় শরীফের ছেলে অর্থাৎ বর্তমান মুখ্যমন্ত্রী হামজা শেহবাজের পিএমএল-এন সরকারের কাছ থেকে ক্ষমতা পুনরুদ্ধারের জন্য প্রয়োজনীয় সংখ্যাগরিষ্ঠতা দিয়েছে। তিনি মাত্র আট সপ্তাহ আগে শপথ নিয়েছিলেন।

এপ্রিলের মাঝামাঝি পর্যন্ত পাঞ্জাব পিটিআই নেতৃত্বাধীন জোটের নেতৃত্বাধীন ছিল। সেই মাসের শুরুতে সংসদীয় অনাস্থা ভোটে ইমরান খানের চার বছরের কেন্দ্রীয় সরকারের পতনের পর পরই তৎকালীন মুখ্যমন্ত্রী সর্দার উসমান বুজদার পদত্যাগ করেছিলেন। এর ফলে শরিফকে দেশের নতুন প্রধানমন্ত্রী হিসেবে প্রতিস্থাপন এবং একটি বহুদলীয় জোট গঠনের পথ প্রশস্ত হয়েছিল।

পিটিআই দলত্যাগ বিরোধী আইন লঙ্ঘন করে দলের বিরুদ্ধে ভোট দেয়ার ফলে প্রশ্নবিদ্ধ বিধায়কদের অপসারণ করার জন্য পাকিস্তানের নির্বাচন কমিশনের কাছে সফলভাবে আবেদন করেছিল; পাঞ্জাবের ২০টি আসন খালি রেখেছিল। রবিবার সে আসনগুলোতে ভোটগ্রহণ করা হয়।

ইমরান খান শরিফকে সাধারণ নির্বাচনের জন্য চাপ দিয়ে আসছেন। তিনি উপ-নির্বাচনের প্রচারণার সময় এবং গণমাধ্যম সাক্ষাৎকারের সময় তার সমর্থকদেরকে তার দলকে ভোট দেয়ার জন্য অনুরোধ করে আসছেন যাতে পারিবারিক শাসন এবং পাকিস্তানের পররাষ্ট্র নীতিতে যুক্তরাষ্ট্রের কথিত প্রভাবের অবসানে তাকে সহায়তা করা যায়।

XS
SM
MD
LG