অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

৬ জানুয়ারি তদন্তঃ গণ সহিংসতার বিষয়ে ট্রাম্প “নিষ্ক্রিয়তাই বেছে নিয়েছিলেন”


২০২১ সালের ৬ জানুয়ারি যুক্তরাষ্ট্রের ক্যাপিটলে হামলার তদন্তকারী হাউস সিলেক্ট কমিটি শুনানি চালানোর সময় ২০২১ সালের ৭ জানুয়ারি তৎকালীন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের একটি বিবৃতি রেকর্ড একটি ভিডিও চালানো হয়েছে। ২১ জুলাই, ২০২২।

গত বছরের ৬ জানুয়ারি যুক্তরাষ্ট্রের ক্যাপিটলে দাঙ্গার তদন্তকারী যুক্তরাষ্ট্রের আইনপ্রণেতারা বলেছেন, তৎকালীন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের হাজার হাজার সমর্থক ক্যাপিটলে জো বাইডেনের নির্বাচনী বিজয়ের প্রত্যয়ন পত্রে বাধা দেয়ার চেষ্টা করার সময় ট্রাম্প ৩ ঘণ্টার বেশি সময় নিষ্ক্রিয় ছিলেন।

কমিটির একজন সদস্য অ্যাডাম কিনজিঞ্জার বলেন, ট্রাম্প ব্যবস্থা নিতে ব্যর্থ হয়েছিলেন কারণ জনতা প্রত্যয়ন বন্ধ করে দিয়েছিল।

সূচনা বক্তব্যে প্রতিনিধি পরিষদের সদস্য ও কমিটির চেয়ারম্যান ডেমোক্র্যাট বেনি টম্পসন বলেন, “৬ জানুয়ারি ১৮৭ মিনিটের জন্য লাগামহীন ধ্বংসাত্মক শক্তির অধিকারী এই মানুষটিকে (ট্রাম্প) নাড়ানো যায়নি।তার সহায়তাকারী, তার মিত্র, দাঙ্গাবাজদের হিংসাত্নক স্লোগান, বা যারা জনতার মুখোমুখি হচ্ছে তাদের মরিয়া আবেদন- কোনো কিছু দ্বারাই তাকে আন্দোলিত করা যায়নি। ”

রিপাবলিকান ভাইস চেয়ারপারসন এবং প্রতিনিধি পরিষদের সদস্য লিজ চেনি বলেন, নির্বাচনে কারচুপি হয়েছে – সমর্থকদেরকে এমনটা বোঝাতে পারার ব্যাপারে ট্রাম্প নিশ্চিত ছিলেন। তিনি বলেন, ট্রাম্প “তাদের দেশপ্রেমকে শিকার বানিয়েছিলেন ।” চেনি ৬ জানুয়ারিতে ট্রাম্পের আচরণকে “অমার্জনীয় ” বলে অভিহিত করেছেন।

যুক্তরাষ্ট্রে জাতীয় ভাবে সর্বসাধারণের ভোটের স্থলে ৫০টি রাজ্যের প্রতিটিতে পৃথক ভোটে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন করা হয়।প্রতিটি রাজ্যের ইলেক্টোরাল ভোটের সংখ্যা তার জনসংখ্যার উপর নির্ভর করে, তাই সবচেয়ে বড় রাজ্যগুলো সবচেয়ে বেশি প্রভাব ফেলে। ক্যাপিটলে হামলা চালানো দাঙ্গাকারীরা আইনপ্রণেতাদের ইলেক্টোরাল কলেজে বাইডেনের চূড়ান্ত ৩০৬-২৩২ জয়ের প্রত্যয়ন থেকে বিরত রাখার চেষ্টা করেছিল।

XS
SM
MD
LG