অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

তালিবানের সুশাসন প্রতিষ্ঠার দাবি, আফগান তহবিল মুক্ত করতে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতি আহ্বান


ফাইল ছবি – তালিবান পররাষ্ট্রমন্ত্রী আমির খান মুত্তাকি ২০২১ সালের ১৪ সেপ্টেম্বর আফগানিস্তানের কাবুলে একটি সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখছেন।

আফগানিস্তানের তালিবান সরকারের প্রধান কূটনীতিক মঙ্গলবার উজবেকিস্তানে অনুষ্ঠানরত এক আন্তর্জাতিক সম্মেলনে অভিযোগ করেন, যুক্তরাষ্ট্রের আরোপ করা নিষেধাজ্ঞার কারণে যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশটিতে দারিদ্র্য বাড়ছে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী আমির খান মুত্তাকি আবারও ওয়াশিংটনের প্রতি আর্জি জানান, সকল বিধিনিষেধ প্রত্যাহার করতে এবং যুক্তরাষ্ট্রে আফগান কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ৭০০ কোটি ডলারের তহবিল নিঃশর্তে অবমুক্ত করে দিতে, যাতে তালিবান সে অর্থ ব্যবহার করে দেশের অর্থনৈতিক ও মানবিক সংকটের মোকাবিলা করতে পারে। এছাড়াও, আফগান রিজার্ভের ২০০ কোটি ডলার ইউরোপের বিভিন্ন দেশে আটকে আছে।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ফেব্রুয়ারিতে আফগান তহবিলের ৭০০ কোটি ডলারের অর্ধেক পরিমাণ অবমুক্ত করে দেওয়ার জন্য একটি নির্বাহী আদেশ দেন, যাতে এই অর্থ আফগান জনগণের মানবিক ত্রাণের কাজে ব্যবহার করা যায়। বাকি অর্থ তালিবানের বিরুদ্ধে আমেরিকার আদালতে চলমান সন্ত্রাস-সংক্রান্ত বিভিন্ন মামলার জন্য রেখে দেওয়া হয়েছে।

সাবেক আফগান কর্মকর্তা ও রাজনৈতিক বিশ্লেষক তোরেক ফরহাদি বলেন, ‘সমস্যা হচ্ছে, তালিবান এখনও আমেরিকার বিধিনিষেধের তালিকায় রয়েছে।’

আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সদস্যদের চাহিদা, তালিবান শাসকগোষ্ঠীকে আনুষ্ঠানিক স্বীকৃতি দেওয়ার আগে তারা যেন নারী ও অন্যান্যদের অধিকার রক্ষা সংক্রান্ত কার্যক্রমে অগ্রগতি সাধন করে।

কট্টরপন্থি দলটি শুরুতে নারীদের কাজ ও শিক্ষার অধিকার রক্ষার অঙ্গীকার করলেও সে সিদ্ধান্ত থেকে উল্লেখযোগ্য পরিমাণে সরে এসেছে। তারা বেশিরভাগ কিশোরীদের মাধ্যমিক স্কুলে পড়ালেখার সুযোগ বন্ধ করেছে। নারী সরকারী কর্মকর্তাদের বাসায় থাকতে বলা হয়েছে। শুধুমাত্র শিক্ষা, স্বাস্থ্য ও অন্য কিছু মন্ত্রকের নারী কর্মীরা তাদের চাকুরি ধরে রাখতে সমর্থ হলেও তাদেরকে জনসম্মুখে মুখ ঢেকে রাখতে হয়।

তালিবান তাদের এসব নীতিমালার স্বপক্ষে আফগান ঐতিহ্য ও শারিয়া আইনের দোহাই দেয়।

তালিবান পররাষ্ট্রমন্ত্রী আমির খান মুত্তাকি তার বক্তব্যে জানান, ‘আমরা বিশ্বের সব দেশের সঙ্গে ইতিবাচক সম্পর্ক গড়তে প্রস্তুত, যেটি পারস্পরিক সম্মানবোধ ও বৈধ দ্বিপাক্ষিক চাহিদার ওপর নির্ভর করে তৈরি হবে।’

XS
SM
MD
LG