অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

বাইডেন আবার কোভিড পজিটিভ হওয়ায় আইসোলেশনে ফিরলেন


হোয়াইট হাউজের দেওয়া এই ছবিতে দেখা যাচ্ছে, প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ওয়াশিংটনে অবস্থিত হোয়াইট হাউজের ট্রুম্যান বারান্দা থেকে টেলিফোনে কথা বলছেন, ২৫ জুলাই ২০২২।

প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের শনিবার আবার কোভিড-১৯ সংক্রমণ ধরা পড়েছে। এর মাত্র তিনদিনের কিছু বেশি সময় আগেই তাকে আইসোলেশন থেকে বের হওয়ার অনুমতি দেওয়া হয়েছিল। একটি অ্যান্টি ভাইরাল ওষুধ দিয়ে চিকিৎসার পর রোগ “ফেরত আসার” এটি একটি বিরল ঘটনা। হোয়াইট হাউজ এসব তথ্য জানিয়েছে।

হোয়াইট হাউজের চিকিৎসক ডা. কেভিন ও’কনর্ এক চিঠিতে জানান যে, বাইডেনের “কোন উপসর্গ ফিরে আসেনি এবং তিনি এখনও বেশ সুস্থ বোধ করছেন।”

সেন্টারস ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন (সিডিসি) এর দিকনির্দেশনা অনুযায়ী, বাইডেন আবার অন্তত পাঁচদিনের জন্য আইসোলেশনে থাকবেন। সংস্থাটি জানায় যে, রোগ ফেরত আসার বেশিরভাগ ঘটনাতেই সামান্যই অসুস্থতা দেখা যায় এবং এমন সময়ে ‍গুরুতর অসুস্থতার কোন ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি।

হোয়াইট হাউজ থেকে এই মঙ্গলবার মিশিগানে প্রেসিডেন্টের্ একটি সফরের ঘোষণা দেওয়ার মাত্র দুইঘন্টা পরই বাইডেনের সংক্রমণের খবর পাওয়া যায়। দেশের অভ্যন্তরেই উচ্চপ্রযুক্তি সম্পন্ন উৎপাদনে উৎসাহ দিতে পাস হওয়া একটি আইনের প্রচারণার জন্য সফরটি করার কথা ছিল। বাইডেন রবিবার সকালে ডেলাওয়্যার-এর উইলমিংটনে নিজের বাড়িতে সফর করারও কথা ছিল। প্রেসিডেন্ট করোনা আক্রান্ত থাকাকালীন ফার্স্ট লেডি জিল বাইডেন তাদের সেই বাড়িতে অবস্থান করছিলেন। বাইডেন আইসোলেশনে ফিরে যাওয়ায় উভয় সফরই বাতিল করা হয়েছে।

৭৯ বছর বয়সী বাইডেনকে প্যাক্সলোভিড নামের একটি অ্যান্টি ভাইরাল ওষুধ দিয়ে চিকিৎসা করা হয়। গত মঙ্গল ও বুধবার করা পরীক্ষায় তার নেগেটিভ ফলাফল এসেছিল। এরপর ঘরের ভেতরে মাস্ক পরিহিত অবস্থায় তাকে আইসোলেশনের বাইরে যাওয়ার জন্য অনুমতি দেওয়া হয়েছিল। তার আবারও সংক্রমণ ধরা পড়ায় তিনি এমন স্বল্প কিছু মানুষের তালিকায় পড়লেন, যাদের ঐ ওষুধ দিয়ে চিকিৎসা করার পর আবারও রোগ পুনরায় ফিরে আসা ধরা পড়েছে।

XS
SM
MD
LG