অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

জাতীয় পার্টির সাবেক মহাসচিব রুহুল আমিন হাওলাদারকে আত্মসমর্পণের নির্দেশ হাইকোর্টের


জাতীয় পার্টির সাবেক মহাসচিব রুহুল আমিন হাওলাদার

দুর্নীতির মামলায়, জাতীয় পার্টির (জাপা) সাবেক মহাসচিব এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদারকে দুই সপ্তাহের মধ্যে বিচারিক আদালতে আত্মসমর্পণের নির্দেশ দিয়েছেন বাংলাদেশ সুপ্রীম কোর্টের হাইকোর্ট বিভাগ। সোমবার (১ আগস্ট) বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি খিজির হায়াতের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ রুলসহ এ আদেশ দেন।

১৯৯১ সালের একটি দুর্নীতির মামলার অভিযোগ থেকে, গত বছরের ২১ জানুয়ারি রুহুল আমিন হাওলাদারকে অব্যাহতি দেন ঢাকার বিভাগীয় বিশেষ জজ আদালত। ঐ আদেশের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে রিভিশন করে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। আদালতে দুদকের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী একেএম ফজলুল হক।

আইনজীবী ফজলুল হক জানান, “অব্যাহতির আদেশের বিরুদ্ধে দুদক রিভিশন করে। শুনানি নিয়ে হাইকোর্ট ঐ অব্যহতির আদেশ কেন বাতিল ঘোষণা করা হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন। একই সঙ্গে, আদেশ পাওয়ার দুই সপ্তাহের মধ্যে রুহুল আমিন হাওলাদারকে বিচারিক আদালতে আত্মসমর্পণ করতে বলেছেন হাইকোর্ট।”

বস্ত্রমন্ত্রী থাকাকালে, ক্ষমতার অপব্যবহার করে টেন্ডার ছাড়া একটি প্রতিষ্ঠানকে ৩১ লাখ ৫৪ হাজার ৭৪০ টাকার কাজ দিয়ে, অবৈধ পন্থায় আর্থিক লাভবান হওয়ার অভিযোগে ১৯৯১ সালের ১৯ নভেম্বর তৎকালীন দুর্নীতি ব্যুরোর উপ-পরিচালক মো. দেলোয়ার হোসেন তেজগাঁও থানায় এ মামলা দায়ের করেন।

এর আগে গত ৭ মার্চ অপর একটি দুর্নীতির মামলায় হাইকোর্ট তাকে চার সপ্তাহের মধ্যে আত্মসমর্পণের নির্দেশ দেন। স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী থাকাকালে, রাষ্ট্রীয় তহবিলের ৪০ হাজার ৬৪৩ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে ১৯৮৯ সালে তৎকালীন দুর্নীতি ব্যুরো রমনা থানায় তার বিরুদ্ধে এই মামলাটি দায়ের করে। গত বছরের ৬ ডিসেম্বর এই মামলায় রুহুল আমিন হাওলাদারকে খালাস দেন বিচারিক আদালত। ঐ রায়ের বিরুদ্ধে দুদক হাইকোর্টে আপিল করলে, হাইকোর্ট আত্মসমর্পণের নির্দেশ দেন।

XS
SM
MD
LG