অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

লক্ষ্য অর্জনে ধৈর্য ধরে কাজ করবে ঢাকা ও বেইজিং: পররাষ্ট্রমন্ত্রী আব্দুল মোমেন


পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে সাংবাদিকদের ব্রিফিংকালে বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন।

বাংলাদেশ ও চীন সব ধরনের বাধা উপেক্ষা করে, তাদের উন্নয়ন লক্ষ্য অর্জনে ‘ধৈর্য’ নিয়ে কাজ করতে সম্মত হয়েছে। রবিবার (৭ আগস্ট) বিকালে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে সাংবাদিকদের ব্রিফিংকালে এ কথা বলেন বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন। এ সময় তিনি চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই-এর সদ্য সমাপ্ত ঢাকা সফরকে ‘রাজনৈতিকভাবে অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ’ হিসেবে বর্ণনা করেন।

ড, মোমেন বলেন, “চীনের পক্ষ থেকে আশ্বস্ত করা হয়েছে যে, তারা বাংলাদেশের উন্নয়নের অগ্রযাত্রায় সবসময় পাশে থাকবে এবং বিদ্যমান সুসম্পর্ককে নতুন উচ্চতায় নিয়ে যেতে একসঙ্গে কাজ করবে।”

এক প্রশ্নের জবাবে পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোমেন বলেন, “গ্লোবাল ডেভেলপমেন্ট ইনিশিয়েটিভ (জিডিআই) নিয়ে আলোচনা হয়েছে। কিন্তু গ্লোবাল সিকিউরিটি ইনিশিয়েটিভ (জিএসআই), বেল্ট অ্যান্ড রোড ইনিশিয়েটিভ (বিআরআই) বা নতুন চীনা ঋণ নিয়ে কোনো আলোচনা হয়নি।”

চীনের স্টেট কাউন্সিলর ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে গণভবনে সাক্ষাতের আগে রাজধানীর একটি হোটেলে পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোমেনের সঙ্গে ঘণ্টাব্যাপী দ্বিপক্ষীয় বৈঠক করেন।

ড. মোমেন বলেন, “বাংলাদেশ জিডিআই সংক্রান্ত প্রস্তাবটি আরও পর্যালোচনা করবে। কারণ অংশীদার দেশগুলো থেকে বিভিন্ন প্রস্তাব আসছে।”

“বাংলাদেশ পক্ষ, সময়মত উন্নয়ন প্রকল্পগুলো বাস্তবায়নের জন্য চীনা পক্ষের কাছ থেকে সহযোগিতা কামনা করেছে;” জানান বাংরাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোমেন জানান, “উভয় পক্ষ, দুই দেশের মধ্যে বাণিজ্য ব্যবধান কমানোর উপায় নিয়ে আলোচনা করেছে এবং চীন সেপ্টেম্বর থেকে চীনের বাজারে শুল্কমুক্ত প্রবেশাধিকারের তালিকায় বাংলাদেশের আরও পণ্য যুক্ত করতে সম্মত হয়েছে। এ ছাড়া, চীনা পক্ষ অবিলম্বে সেদেশে বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের ভিসা দিতে সম্মত হয়েছে।”

বর্তমানে, চীনে অধ্যয়নরত প্রায় পাঁচ হাজার বাংলাদেশি শিক্ষার্থী সেখানকার ক্যাম্পাসে ফিরে যাওয়ার অপেক্ষায় রয়েছেন।

রবিবার সকাল ১০টা ৪৫ মিনিটে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ওয়াং ই-কে বিদায় জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোমেন। চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী প্রায় ১৮ ঘণ্টার বাংলাদেশ সফর শেষ করে, মঙ্গোলিয়ার উদ্দেশে যাত্রা করেন।

XS
SM
MD
LG