অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

আগামী জাতীয় নির্বাচনে সর্বোচ্চ ১৫০টি আসনে ইভিএম ব্যবহার করা হবে: নির্বাচন কমিশন


ইভিএম মেশিনে ভোট দিচ্ছেন একজন ভোটার। (ছবি: ইউএনবি)

আগামী বছরের শেষ দিকে অনুষ্ঠেয় সাধারণ নির্বাচনে ৩০০টির মধ্যে সর্বোচ্চ ১৫০ টি আসনে প্রচলিত ব্যালট পেপারের পরিবর্তে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) ব্যবহারের সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলাদেশের নির্বাচন কমিশন (ইসি)।

মঙ্গলবার (২৩ আগস্ট) রাজধানী ঢাকার নির্বাচন ভবনে, প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী হাবিবুল আউয়ালের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ইসি’র বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত হয়।

বৈঠক শেষে ইসির অতিরিক্ত সচিব অশোক কুমার দেবনাথ সাংবাদিকদের বলেন, “আগামী জাতীয় নির্বাচনে সর্বোচ্চ ১৫০টি আসনে ইভিএমের মাধ্যমে ভোটগ্রহণের সিদ্ধান্ত নিয়েছে ইসি। আবার একটি নির্বাচনী এলাকায়ও ব্যবহার হতে পারে।”

তিনি আরও বলেন, “কমিশনকে ১৫০টি নির্বাচনী এলাকায় মেশিন ব্যবহারের জন্য আরও ইভিএম কিনতে হবে। সুতরাং, মেশিন ক্রয় সাপেক্ষে সর্বোচ্চ ১৫০টি নির্বাচনী এলাকায় ইভিএম ব্যবহার করা হবে।”

অতিরিক্ত সচিব অশোক কুমার দেবনাথ জানান, “গত জুনে রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে ইসির সংলাপে যে সুপারিশগুলো এসেছে, সেগুলো বিবেচনায় নিয়ে, সব দিক বিশ্লেষণ করে কমিশন এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে।”

অতিরিক্ত সচিব বলেন, “এখন ইসির কাছে ৭০ থেকে ৭৫টি আসনে নির্বাচনের জন্য যথেষ্ট দেড় লাখ ইভিএম রয়েছে।”

XS
SM
MD
LG