অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ইউক্রেনের সঙ্কটাপন্ন পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র পরিদর্শনে প্রস্তুত আইএইএ বিশেষজ্ঞ দল


ইউক্রেনে রুশ হামলার পর, ইউক্রেনের ঝাপোরিঝঝিয়া অঞ্চলের রুশ নিয়ন্ত্রিত এনেরদোহার শহরের বাইরে অবস্থিত, ঝাপোরিঝিয়া পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের একটি ভবন, ২২ আগস্ট ২০২২।

আন্তর্জাতিক তদন্তকারীরা আগামী দিনগুলোতে ইউক্রেনের সঙ্কটাপন্ন ঝাপোরিঝঝিয়া পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রটি পরিদর্শন করতে প্রস্তুত রয়েছেন। একইসাথে শনিবার স্থাপনাটির আশেপাশে নতুন করে লড়াইয়ের খবর পাওয়া গেছে।

আশা করা হচ্ছে জাতিসংঘের আন্তর্জাতিক পরমাণু শক্তি কমিশন (আইএইএ)-এর বিশেষজ্ঞ-দল এ সপ্তাহেই বিদ্যুৎকেন্দ্রটি পরিদর্শন করবে। ইউক্রেনের জ্বালানীমন্ত্রীর উপদেষ্টা লানা জেরকাল এমন তথ্য জানিয়েছেন। আইএইএ’র প্রধান, রাফায়েল মারিয়ানো গ্রসি-কে উদ্ধৃত করে জানানো হয় যে, সম্ভাব্য বিপর্যয়ের বিষয়ে সতর্ক করে তিনি বলেছেন, কয়েকদিনের মধ্যেই তিনি স্থানটি পরিদর্শন করতে চান।

বিশাল এই পারমাণবিক স্থাপনাটির কিছু কিছু অংশে আঘাত লাগার পর, তেজস্ক্রিয়তা ছড়িয়ে পড়ার ঝুঁকির আশঙ্কা নিয়ে কর্মকর্তারা উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছেন। রাশিয়া বলেছে যে, তারা আইএইএ’র কাজকে সমর্থন করে। তবে, এই স্থাপনাকে ‘নিরস্ত্র অঞ্চল’ হিসেবে প্রতিষ্ঠা করতে, তাদের সৈন্য সরিয়ে নেওয়ার বিষয়ে অসম্মতি জানিয়েছে।

ইউরোপের বৃহত্তম এই পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রটিতে গোলা বর্ষণের জন্য, রাশিয়া এবং ইউক্রেন পরস্পরের বাহিনীকে দোষারোপ করেছে। রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন বিদ্যুৎকেন্দ্র পরিচালনাকারী প্রতিষ্ঠান, এনেরগোঅ্যাটম শনিবার বলেছে, গত কয়েকদিন ধরে ঐ স্থাপনাটিতে রুশ সৈন্যরা “ অবিরাম গোলাবর্ষণ” করেছে।

এমন দাবির জবাবে, রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রক বলেছে, ইউক্রেনের বাহিনী গত একদিনে “ঐ বিদ্যুৎকেন্দ্রের এলাকায় তিনবার গোলাবর্ষণ করেছে”। এক বিজ্ঞপ্তিতেেএই রুশ মন্ত্রক বলেছে, “মোট ১৭টি গোলাবর্ষণ করা হয়েছে”।

XS
SM
MD
LG