অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

নারায়ণগঞ্জে যুবদলকর্মী শাওন হত্যা মামলায় অভিযুক্ত পাঁচ হাজার


বাংলাদেশের নারায়ণগঞ্জে পুলিশ ও বিএনপি নেতা-কর্মীদের মধ্যকার সংঘর্ষে গুলিতে যুবদলকর্মী শাওনের মৃত্যুর ঘটনায় হত্যা মামলা হয়েছে। বৃহস্পতিবার রাতে নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানায়, নিহত শাওনের ভাই মিলন প্রধান বাদী হয়ে, এই মামলা দায়ের করেন। মামলায় অজ্ঞাত প্রায় পাঁচ হাজার জনকে অভিযুক্ত করা হয়েছে।

নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানার ওসি (তদন্ত) মোবাইল ফোনে জানান, “নিহত ব্যক্তির বড়ভাই মিলন প্রধান বৃহস্পতিবার (১ সেপ্টেম্বর) দিবাগত রাতে অজ্ঞাতনামা চার-পাঁচ হাজার জনকে অভিযুক্ত করে মামলা দায়ের করেছেন। আমরা তদন্ত করে ব্যবস্থা নেবো।”

তিনি আরও বলেন, “শোভাযাত্রা থেকে পুলিশ বক্সে হামলা, ভাঙচুর ও যে সহিংসতা হয়েছে, এর বিরুদ্ধে পুলিশ বাদী হয়ে পৃথক দুইটি মামলা দায়েরের প্রক্রিয়া চলছে।”

মামলায় বিএনপি নেতাকর্মীদের নাম উল্লেখ করা হয়েছে কি না এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, “না, অজ্ঞাতনামাদের কথা উল্লেখ রয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে দোষীদের খুঁজে বের করা হবে।”

এ বিষয়ে নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনিচুর রহমান মোল্লা জানান, “একটি মামলা হয়েছে। এর পাশাপাশি পুলিশের ওপর হামলাসহ অন্যান্য বিষয়ে মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। বিস্তারিত পরে জানাতে পারবো।”

উল্লেখ্য, ১ সেপ্টেম্বর সকাল সাড়ে ১০টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত নারায়ণগঞ্জের ডিআইটি বাণিজ্যিক এলাকায় দেড় ঘণ্টা ধরে পুলিশের সঙ্গে বিএনপির নেতাকর্মীদের দফায় দফায় সংঘর্ষ হয়। এ সময় শাওন নিহত হন; আর পথচারী-নারীসহ ২৬ জন গুলিবিদ্ধ হন। এছাড়া, ধাওয়া, ইটপাটকেল নিক্ষেপ ও লাঠিপেটায় পুলিশের সদস্যসহ অর্ধশতাধিক মানুষ আহত হয়।

XS
SM
MD
LG