অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

আফগানিস্তানে সর্বশেষ আমেরিকান জিম্মিকে বন্দি বিনিময়ের মাধ্যমে মুক্তি দিয়েছে তালিবান


বশির নুরজাই (কেন্দ্রে) আফগানিস্তানের কাবুলে ইন্টারকন্টিনেন্টাল হোটেলে তার মুক্তির অনুষ্ঠানে। নুরজাই একজন কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ী এবং তালিবান সদস্য। ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২২।

সোমবার তালিবান আফগানিস্তানে থাকা একমাত্র আমেরিকান জিম্মি মার্ক ফ্রেরিক্সকে মুক্তি দিয়েছে। তালিবান মাদক ব্যবসায়ী বশির নুরজাই যুক্তরাষ্ট্রের কারাগারে যাবজ্জীবন সাজা ভোগ করছিলেন। তার বিনিময়ে মার্ক ফ্রেরিক্সকে মুক্তি দেয়া হয়।

প্রায় ৬০ বছর বয়সী ফ্রেরিক্স একজন আমেরিকান প্রকৌশলী এবং নৌবাহিনীর একজন ভেটেরান। ২০২০ সালের গোড়ার দিকে তাকে কাবুলে অপহরণ করা হয়েছিল। সেসময় যুক্তরাষ্ট্র এবং নেটো সৈন্যরা পশ্চিমা-সমর্থিত আফগান সরকারের সমর্থনের তৎকালীন তালিবান বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধে লড়াই করছিল।

বাইডেন বলেছেন, তার প্রশাসন জিম্মি বা অন্যায়ভাবে বিদেশে আটক থাকা সমস্ত আমেরিকানদের নিরাপদে প্রত্যাবর্তনকে অগ্রাধিকার দিয়ে চলেছে । তারা তাদের পরিবারের সাথে পুনরায় মিলিত না হওয়া পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্র এ কার্যক্রম চালিয়ে যাবে।

হাজি বশির নামে পরিচিত নুরজাইকে ২০০৫ সালে নিউইয়র্কে গ্রেপ্তার করা হয়। পরবর্তীতে তার বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রে মিলিয়ন ডলার মূল্যের হেরোইন পাচারের অভিযোগ আনা হয়। শীর্ষ এই তালিবান সহযোগী হেরোইন পাচার থেকে অর্থ দিয়ে বিদ্রোহীদের তহবিল ও অস্ত্র সরবরাহে সহায়তা করেছিল বলে জানা গেছে।

নুরজাইয়ের আইনজীবী অস্বীকার করেছিলেন যে তার মক্কেল একজন মাদক সম্রাট ছিলেন। তিনি যুক্তি দিয়েছিলেন যে, তার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগগুলো খারিজ করা উচিত। কারণ যুক্তরাষ্ট্রের কর্মকর্তারা তাকে এই আশ্বাস দিয়ে প্রতারিত করেছিল যে, তাকে গ্রেপ্তার করা হবে না।

সমালোচকরা বলেছেন, বন্দি বিনিময় তালিবানের সাথে চুক্তির ক্ষেত্রে যুক্তরাষ্ট্রের নীতিতে কোনো পরিবর্তন ঘটাবে কি না তা অনুমান করার মতো যথেষ্ট সময় এখনো অতিবাহিত হয়নি।

মানবাধিকার এবং সন্ত্রাস-সম্পর্কিত উদ্বেগের কারণে যুক্তরাষ্ট্র এবং বৃহত্তর বিশ্ব এখনো তালিবান সরকারকে স্বীকৃতি দেয়নি। তারা উল্লেখ করেন, ইসলামপন্থী গোষ্ঠী তালিবান দীর্ঘদিন ধরে ফ্রেরিক্স-এর অপহরণের পেছনে তাদের জড়িত থাকার বিষয়টি অস্বীকার করেছিল।

XS
SM
MD
LG