অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

পাকিস্তান বা অন্য দেশের বিরুদ্ধে আফগান ভূখণ্ড ব্যবহারকে ‘রাষ্ট্রদ্রোহিতা’ ঘোষণা তালিবানের


পাকিস্তানের খাইবার জেলায় পাহাড়ের উপরে অবস্থিত বিগ বেন চৌকিতে, পাকিস্তান-আফগানিস্তান সীমান্ত বেষ্টনী বরাবর টহল দিচ্ছেন পাকিস্তানের সেনাবাহিনীর সৈন্যরা, ৩ আগস্ট ২০২১। (ফাইল ফটো)

বিশ্ববাসীকে তালিবানের দেওয়া সন্ত্রাসবিরোধী নিশ্চয়তাগুলো নিয়ে সংশয় বেড়ে চলার মধ্যে, ইসলামী এই গোষ্ঠীটি বলেছে যে, পাকিস্তান বা অন্য যে কোন দেশের বিরুদ্ধে আফগানিস্তানের ভূখণ্ডকে ব্যবহারকারী যে কাউকে তারা গ্রেফতার করে তার বিরুদ্ধে “রাষ্ট্রদ্রোহিতার” বিচার করবে।

তালিবান মুখপাত্র জাবিহুল্লাহ মুজাহিদ ভিওএ-কে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এমন সতর্কবার্তা দেন। সাম্প্রতিক সময়ে আন্তঃসীমান্ত সন্ত্রাসী হামলা বৃদ্ধি পেয়েছে, যেগুলোতে পাকিস্তানের নিরাপত্তা বাহিনীর ডজনকয়েক সদস্য নিহত হয়েছেন।

এর মধ্যে সর্বসাম্প্রতিক হামলাটি শুক্রবার ঘটে, যখন “আফগানিস্তানের ভেতর থেকে সন্ত্রাসীরা” পাকিস্তানি সৈন্যদের উপর গুলিবর্ষণ আরম্ভ করে। এই ঘটনায় একজন সৈন্য নিহত হয়েছেন। পাকিস্তানের সামরিক বাহিনীর এক বিবৃতিতে এসব কথা জানা গেছে।

পাকিস্তানের কর্মকর্তাদের বিশ্বাস যে, এক বছর আগে কাবুলে ক্ষমতা দখলের পর থেকে, তালিবান পাকিস্তানে অবস্থিত তাদের শাখাটির কর্মকাণ্ডের প্রতি নজর দেওয়া বন্ধ করে দিয়েছে, যারা আফগানিস্তানের অভয়াশ্রমগুলো থেকে নিজেদের কার্যক্রম পরিচালনা করছে। নিষিদ্ধ ঘোষিত তেহরিক-ই-তালিবান পাকিস্তান (টিটিপি) হল পাকিস্তানে তালিবানের এই শাখা।এই শাখা গোষ্ঠীটি পাকিস্তানি তালিবান নামেও পরিচিত।

এমন অভিযোগ তালিবান প্রত্যাখ্যান করেছে এবং পাকিস্তান ও টিটিপি’র মধ্যে একটি শান্তি চুক্তি মধ্যস্থতা করার প্রচেষ্টায়, এই দুই প্রতিপক্ষের আলোচকদের মধ্যে সাম্প্রতিক মাসগুলোতে আলোচনারও আয়োজন করেছে। কিন্তু এমন প্রচেষ্টার ফলে আফগানিস্তানে সূত্রপাত হওয়া এই সন্ত্রাসী হুমকি হ্রাস পায়নি এবং আপাতদৃষ্টিতে শান্তি প্রক্রিয়াটি ভেস্তে গিয়েছে।

তালিবান ক্ষমতায় ফিরে আসার পর থেকে টিটিপি বিদ্রোহীরা তাদের কার্যক্রম পরিচালনায় আরও অধিক স্বাধীনতা ও গতিশীলতা লাভ করেছে বলে যে অভিযোগ রয়েছে, সে বিষয়ে এই মাসে এর আগে কাবুলে মুজাহিদের দফতরে তাকে ভিওএ প্রতিক্রিয়া জানাতে অনুরোধ করেছিল। সেসময়ে মুজাহিদ বলেছিলেন, “এখানে যেই উপস্থিত রয়েছে, তাদের এমন কোন ধরনের কর্মকাণ্ড পরিচালনার অনুমতি নেই, কারণ তারা আমাদেরকে আশ্বস্ত করেছে যে, তারা অন্য কোন দেশকে হুমকির মুখে ফেলবে না।”


XS
SM
MD
LG